সাংবাদিক পেটানো মেম্বর ছোট খোকন গ্রেপ্তার


প্রকাশিত : মে ১৬, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: সাংবাদিক পেটানো সেই ইউপি মেম্বর হাবিবুর রহমান ওরফে ছোট খোকন অবশেষে অসামাজিক কাজে লিপ্ত অবস্থায় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন। সদর উপজেলার আগরদাড়ি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের দুর্দান্ত মেম্বর তিনি।

 

সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে নিজ খামার বাড়িতে ভ্রাম্যমাণ মক্ষিরানী নিয়ে ফূর্তি করার সময় বেরসিক পুলিশ ইউপি মেম্বর হাবিবুর রহমান ছোট খোকনকে গ্রেপ্তার করে। একই সময় পুলিশ ওই ভ্রাম্যমাণ মুক্ষিরানীকে গ্রেপ্তার করে।
এলাকাবাসি ও পুলিশ জানায়, সদর উপজেলার কাশেমপুর গ্রামের মৃত নাসের সরদারের ছেলে হাবিুবর রহমান ছোট খোকন আগরদাড়ি ইউপির ৭নং ওয়ার্ড মেম্বর। কাশেমপুর দক্ষিণপাড়া ফাকা মাঠের মধ্যে মেম্বরের একটি বিলাশ বহুল খামারবাড়ি আছে। সোমবার দুপুরে শহরের রসুলপুর এলাকা থেকে এক ভ্রাম্যমান মক্ষিরানীকে ডেকে নিয়ে যায় ওই খামারবাড়িতে সেখানে নিয়ে ফূর্তি করার সময় গ্রামবাসী তাদেরকে বিবস্ত্র অবস্থায় ধরে ফেলে। পরে তাদের একটি ঘরে আটকে রেখে সদর থানার পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে সদর থানার এএসআই আব্দুল মালেকের নেৃতত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে মেম্বর হাবিবুর রহমান ও তার ভাড়া করা মক্ষিরানীকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে।
এলাকাবাসী আরো জানায়, মেম্বর হওয়ার পর এই নিয়ে চার বার ধরা খেল মেম্বর হাবিবুর রহমান ছোট খোকন। ইতোপূর্বে একই খামার বাড়ি থেকে একবার, কাশেমপুরে একবার এবং বাবুলিয়া থেকে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে ছোট খোকন। এ ঘটনায় গোটা এলাকায় ছি: ছি: পড়ে গেছে। বেরসিক জনতার মুখ থেকে বেরিয়ে আসছে নানা কথা। কেউ বলছে লম্পট বটে! কেউ বলছে লুচ্চা বটে! আবার কেউ বলছে লুচ্চা মেম্বরের দুই গালে, ঝাটা মারো তালে তালে।
এদিকে, তার বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে ২০০৬ সালে চাঁদা বাজী র মামলা হয়। তার মামলা নং-৯৯/০৬, ধারা-৪৪৭/৩৮৫/৩২৩ ও ২০১৭ সালে সাংবাদিক নির্যাতনের মামলা হয়। যার নং- জি আর- ১২৯/১৭, বর্তমানে সে চার্জশীট ভুক্ত আসামী।
এছাড়া, সদর থানায় তার বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অস্ত্র মহড়া দেওয়ার কারণে তার নামে সাধারণ ডায়েরি করে। যার নং- ৪১৩, তাং- ৯.১.১৬, ৩৮২, তাং- ৭.৩.১৭, ও ৮৯৭, তাং- ১৮.৩.১৭।
এ ব্যাপারে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মারুফ আহমেদ ছোট খোকনকে মক্ষিরানীসহ আটকের বিয়ষটি নিশ্চিত করে জানান, অপরাধী যেই হোক না কেন তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।