শ্যামনগরের ধুমঘাট পল্লীতে প্রতিপক্ষের হামলায় পাঁচজন আহত


প্রকাশিত : জুলাই ১, ২০১৭ ||

শ্যামনগর প্রতিনিধি: উপজেলার ঈশ্বরীপুর ইউনিয়নের ধুমঘাট (কেওড়াতলীরচক) পল্লীতে প্রতিপক্ষের হামলায় ষাটোর্ধ বয়সী এক বৃদ্ধ ও বৃদ্ধাসহ পাঁচজন আহত হয়েছে। আহতদের চারজনকে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে অন্তত এক জনের অবস্থা খারাপ বলে আহতের পরিবার সুত্র জানিয়েছে।
হামলার ঘটনাটি ঘটেছে ৩০ জুন শুক্রবার বেলা এগারটার দিকে। এঘটনায় আহতের পক্ষ থেকে শ্যামনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার কথাও জানিয়েছে আহতদের পরিবার।
শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন এমদাদ হোসেন জানান তার শ্বশুর সামছুর রহমানের সাথে প্রতিবেশী কেরামত সরদারের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বিভিন্ন সময়ে প্রতিবেশীর গরু ছাগল তার শ্বশুরের ক্ষেতের ফসল ও সবজী নষ্ট করে বলে কয়েক বছর পূর্বে দুই প্রতিবেশীর জমির মধ্যবর্তী স্থানে ঘেরা বেড়া দেয়া হয়। বর্ষার শুরু থেকে উক্ত ঘেরা বেড়া দুর্বল হয়ে পড়ায় গতকাল শুক্রবার সকালে ষাটোর্ধ বয়সী সামছুর রহমান আগের ঘেরা বেড়ার সাথে নেট জাল লাগানোর কাজ করছিলেন।
এমদাদ আরও জানায় তার শ্বশুর কাজ সম্পন্ন করে ফিরে আসার পর বেলা এগারটার দিকে প্রতিবেশী কেরামত সরদার ও ইলিয়াস সেখানে উপস্থিত হয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। এসময় সামছুর রহমান ও এমদাদ কথার প্রতিবাদ করলে দু’পক্ষের মধ্যে বাদানুবাদ শুরু হলে কেরামত সরদারের ছেলে আব্দুর রহিম, নবাব আলী আব্দুল করিমসহ প্রতিবেশীর ছেলে ই¯্রাফিল সেখানে উপস্থিত হলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।
এক পর্যায়ে তারা সামছুর রহমান ও এমদাদের উপর হামলে পড়ে। এসময় এমদাদের পিতা এগিয়ে এলে তার মাথায় ধারালো দা দিয়ে আঘাত করা ছাড়াও সামছুর রহমানের স্ত্রীকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে পাশে ফেলে দেয়। হামলাকারীদের দেশী অস্ত্রে আঘাতে এসময় সামছুর রহমান, তার জামাত এমদাদ, মোস্তাফিজুর রহমান, বৃদ্ধ রহিমা বেগমসহ মোট পাঁচজন আহত সহয়।
সামছুর রহমানের পরিবারের উপর হামলা শষুরু হলে এলাকাবাসী দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে তাদের উদ্ধার করে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে। এঘটনায় মোস্তাফিজুর রহমান নামরে আহতদের একজন বাদি হয়ে ইলিয়াস, আব্দুর রহিম, আব্দুল করিম, নবাব আলী, কেরামত সরদার, আলমগীর হোসেন ও ই¯্রাফিলসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে শ্যামনগর থানায় লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছে।
পুলিশ ঘটনার সত্যতা পেলে মামলা হবে বলে জানিয়েছে। আহতদের মধ্যে নজরুল ইসলামের মাথায় আটটি সেলাই এবং এমদাদ, মোস্তাফিজুর ও সামছুর রহমানের হাত ও মাথায় গুরুতর জখমের চিকিৎসার তথ্য দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।