সুন্দরবনে দস্যু আতঙ্ক, মুক্তিপণের দাবীতে ১০ জেলে অপহরণ


প্রকাশিত : আগস্ট ৮, ২০১৭ ||

বাগেরহাট প্রতিনিধি: সুন্দরবনে মুক্তিপণের দাবীতে ১০জেলেকে অপহরণ করা হয়েছে। বনদস্যুরা (নাম অজ্ঞাত) একটি মোবাইল ফোন নাম্বার দিয়ে গেছে। তাদের একটি নাম্বারে যোগাযোগ করে দাবীকৃত টাকা পরিশোধ করতে বলা হয়েছে। অন্যথায় জিম্মিদের হত্যা করার হুমকি দিয়েছে। এ ঘটনায় জেলেদের মধ্যে আতঙ্ক শুরু হয়েছে।
পূর্ব সুন্দরবন থেকে ফিরে আসা জেলে ও জিম্মিদের মহাজন সুত্রে জানা যায়, রোববার গভীর রাতে পূর্ব সুন্দরবনের হরিণটানা ও কলামুলা এলাকার নদীতে মাছ ধরতে ছিল জেলেরো। এসময় ১০-১২ জনের নাম অজানা একটি সশস্ত্র বনদস্যু বাহিনী অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায় এবং তাদেরকে মারধর করে। শেষে ১০নৌকা থেকে ১০জন জেলেকে মুক্তিপণের দাবিতে গভীর বনে ধরে নিয়ে যায়। এ সময় ০১৭৬০২১৩৬১৪ মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করার নির্দেশ দেয়। অপহৃত জেলেরা হচ্ছে, শরণখোলা উপজেলার সোনাতলা গ্রামের শাহজাহান মুন্সীর ছেলে আলী হোসেন মুন্সী (মহাজন ডালিম মেম্বরের জেলে), উত্তর রাজাপুর গ্রামের ছোমেদ গাজীর ছেলে লাল মিয়া গাজী (মহাজন জাকির মেম্বর), পানিরঘাট এলাকার ইছাহাক মোল্লার ছেলে জিয়ারুল মোল্লা (মহাজন খলিলুর রহমান), সোনাতলার নান্না মাতুব্বরের জেলে সহিদুল ইসলাম, খুড়িয়াখালীর জালাল মোল্লার জেলে দেলোয়ার হোসেন ও তাফালবাড়ির মোশারেফ হোসেনের জেলে মাসুদ মিয়ার নাম জানা গেছে। এ ব্যাপারে শরণখোলা থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল জলিল বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই। কেউ কোন অভিযোগও করেনি। তবে, খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের (মংলা) অপারেশন কমান্ডার মো. ফরিদুজ্জামান জানান, জেলে অপহনের খবর শোনার পর সোমবার সকাল থেকেই কোস্টগার্ডের অভিযান শুরু হয়েছে। অপহৃতদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।