সাতক্ষীরার সংগ্রাম প্রাইভেট হাসপাতালে সিজার করতে গিয়ে নবজাতকের মাথা কেটে ফেললো চিকিৎসক


প্রকাশিত : আগস্ট ২০, ২০১৭ ||

 

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
সাতক্ষীরায় চিকিৎসকের অসর্তকতায় ভূমিষ্ঠ হতে গিয়েই মৃত্যু মুখে পড়লো এক নবজাতক। একদিকে অপুষ্টি নিয়ে পৃথিবীর আলো দেখা অন্যদিকে সিজারের সময় চিকিৎসকের অসর্তকতায় মাথায় বেশ কিছুটা কেটা যাওয়ায় জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ওই নবজাতক এখন সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

রোববার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে এমন চিত্র। আর তাই দিশেহারা সাতক্ষীরা সদর উপজেলার এল্লারচরের আবুল হোসেন ও সোমা খাতুন দম্পতি।

আবুল হোসেন জানান, গত ১৮ আগস্ট সন্তান সম্ভবা স্ত্রীকে কেশব নামে এক গ্রাম্য ডাক্তারের পরামর্শে শহরের সংগ্রাম প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে সেখানেই শনিবার দুপুরে সোমা খাতুনের সিজার করেন ডা. সুতৃষ্ণা। ভূমিষ্ঠ হয় একটি ফুটফুটে ছেলে সন্তান। কিন্তু বিপদ ঘটে যায় চিকিসৎকের অসর্তকতায়। সিজার করতে গিয়ে বাচ্চার মাথার বাম পাশে কেটে ফেলে চিকিৎসক। তাৎক্ষণিক তাকে সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। সদর হাসপাতাল থেকে তাকে খুলনায় পাঠানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখন কি করবো বুঝতে পারছি না।

এ ব্যাপারে ডা. ডা. সুতৃষ্ণার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বাচ্চাটি অপুষ্টি নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছে। হওয়ার সাথে সাথে তাকে সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। তার মাথায় কেটে যাওয়ার বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে, আমি আবার খোঁজ নিয়ে দেখছি।

সংগ্রাম প্রাইভেট হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা সাবের রেজা জানান, এটি একটি অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা। সিজার করতে গিয়ে নয়, সম্ভবত পরিষ্কার করতে গিয়ে সামান্য কেটে যেতে পারে।