যৌতুকের দাবি পূরণ করতে না পারায় গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ


প্রকাশিত : আগস্ট ২৪, ২০১৭ ||

 

কুলিয়া (দেবহাটা) প্রতিনিধি: যৌতুকের দাবি পূরণ করতে না পারায় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত জয়নব বেগমের পিতা দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া গ্রামের ইউছুফ আলী কুলিয়া আঞ্চলিক প্রেসক্লাবে এসে সাংবদিকদের কাছে লিখিত অভিযোগ করে বলেন, বিগত পাঁচ বছর পূর্বে সদর উপজেলার শিকড়ী গ্রামের আতিয়ার গাজীর পুত্র কবির হোসেনের সাথে আমার মেয়ে জয়নব (২২) এর বিবাহ হয়। সাংসারিক জীবনে তাদের শিহাব নামে সাড়ে তিন বছরের একটি পুত্র সন্তান আছে। কিন্তু বিয়ের পরপরই জামাই কবির ও তার মা সাহিদা বেগম বিভিন্ন সময় যৌতুকের টাকা দাবি করত। কিন্তু গত ১৮ আগস্ট নতুন করে এক লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে আমার মেয়েকে ব্যাপক নির্যাতন করে এবং শ্বাসরোধ করে মেরে ফেলে। পরে এই হত্যার ঘটনা আড়াল করতে তারা আমার মেয়ের গলায় রশি দিয়ে ঝুলিয়ে রাখে। আমার মেয়ের শ্বশুর বাড়ির লোকজনরা প্রভাবশালী হওয়ায় থানা পুলিশ কে ম্যানেজ করে আমার মেয়ের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে অপমৃত্যু মামলা এন্টি করায়। এব্যাপারে আমি থানা পুলিশ হত্যার কথা বললেও পুলিশ আমার কথা কর্ণপাত করেনি। আমার মেয়ের মৃত শরীরে বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন দেখা যায় তবে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যার কোন চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে আমি প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে তদন্তপূর্বক আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।