খুলনায় অধিকার’র ২৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন


প্রকাশিত : October 10, 2017 ||

দেশের অন্যতম শীর্ষ মানবাধিকার সংগঠন ‘অধিকার’র ২৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার ১০ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১০টায় সংগঠনের খুলনা ইউনিটের পক্ষ থেকে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় অধিকার খুলনা ইউনিটের ফোকাল পার্সন মুহাম্মদ নূরুজ্জামান সভাপতিত্ব করেন।
সভায় বক্তারা ‘অধিকার’র সাফল্য কামনা করে বলেন, দেশে অসংখ্য মানবাধিকার সংগঠন থাকলেও অনেকেরই কার্যক্রম নিয়ে নানা প্রশ্ন রয়েছে। কিন্তু একমাত্র ‘অধিকার’-ই- দেশ, জাতি ও মানবতার কল্যাণে ব্যাপক ভূমিকা রেখে আসছে। বিশেষ করে বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড, গুম, হেফাজতে মৃত্যু-নির্যাতন, বিএসএফ কর্তৃক হত্যা, অপহরণ-নির্যাতন, ধর্ষণ-নারী ও শিশু নির্যাতন এবং সংবাদপত্র ও বাক স্বাধীনতাসহ মানবাধিকার লংঘনজনিত যে কোন বিষয়ে ‘অধিকার’ অগ্রনী ভূমিকা পালন করছে। বক্তারা মানবাধিকার লংঘনজনিত যে কোন বিষয়ে অধিকার’র সাথে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। একই সঙ্গে সব ধরণের মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা বন্ধে সামাজিক প্রতিরোধ তৈরিতে সকল নাগরিকের অংশ গ্রহণ আহবান করা হয়।
উপস্থিত ছিলেন রূপসা উপজেলার ঘাটভোগ ইউপি চেয়ারম্যান সাধন অধিকারী, সিনিয়র সাংবাদিক ওয়াহেদ-উজ-জামান বুলু, হিউম্যান রাইটস ডিফেন্ডার কে এম জিয়াউস সাদাত, আমানুল হক আলেম, এম এ আজিম, জি.এম রাসেল ইসলাম, শওকত হোসেন, সাকিব হাসান, হীরা খাতুন, মো. আহাদ আলী, খাদিজা আক্তার, মো. দ্বীন ইসলাম, মো. হাসান, আল মামুন গালিব, সরোজ কান্তি বিশ্বাস পলাশ, নিতীশ মালাকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন এবং বক্তৃতা করেন।
পরে একই স্থানে (সেপ্টেম্বর’১৭) মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় মানবাধিকার প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, সেপ্টেম্বর মাসে দেশে ৪টি বহির্ভূত হত্যাকান্ড, গুম ১টি, কারাগারে মৃত্যু ৮টি, বিএসএফ কর্তৃক মানবাধিকার লংঘন ৪টি, সাংবাদিকদের ওপর হামলা ৪টি, রাজনৈতিক সহিংসতা ৪৩৬টি, যৌতুক সহিংসতা ১৯টি, ধর্ষণ ৭৫টি, য়ৌন হয়রাণি ১৪টি, এসিড সহিংসতা ৭টি, গণপিটুনীতে মৃত্যু ৫টিসহ তৈরি পোশাক শিল্পসহ অন্যান্য সেক্টরে অসংখ্য মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা ঘটেছে।