চুকনগরে ভূয়া পর্চা বানিয়ে এক ব্যক্তির সম্পত্তির উপর ১৪৪ ধারা জারির অভিযোগ


প্রকাশিত : নভেম্বর ৩০, ২০১৭ ||

 

চুকনগর (খুলনা) প্রতিনিধি: চুকনগরে ভূয়া পর্চা বানিয়ে এক ব্যক্তির সম্পত্তির উপর ১৪৪ ধারা জারির অভিযোগ পাওয়া গেছে এঘটনায় ক্রয়কৃত জমির প্রকৃত মালিক উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে সরজমিনে তদন্তে এসে বিষয়টি দেখার জন্য দাবি জানিয়েছেন জমির মালিক তাজমিন নাহারের স্বামী নাজমুল হাসান মূল পর্চা দেখে জানা যায়, মাঠ জরিপের পর্চা প্রিন্ট পর্চায় দেখা গেছে চুকনগর মৌজায় একটি জমি যার জেএল নংএসএ৯১, আরএস৯৩, খতিয়ান নংএসএ৪৫৪, বর্তমান জরিপে খতিয়ান নং, ডিপি খতিয়ান নং২১২, দাগ নংএসএ ৯২, ৯৩ বর্তমান জরীপের দাগ নং৩০৫, .০৯০০একর জমির মধ্য হতে দং আব্দুল গফুর গাজী .৬৭৯ একর, আব্দুল গফফার গাজী .৩০৯ একর, গফুরননেছা .০০৭ একর নুরজাহান বিবি .০০৫ একর জমির মালিক যাতে প্রিন্ট পর্চায় ডুমুরিয়া উপজেলা সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার হাসান শহীদের সিল স্বাক্ষর রয়েছে এবং মাঠ জরিপ পর্চায় রাজস্ব কর্মকর্তার সত্যায়িত সিল সাক্ষর রয়েছে কিন্তু যে পর্চা দেখিয়ে ১৪৪ ধারা আনা হয়েছে সেই পর্চায় কোন অফিসারের সিল স্বাক্ষর নেই এবং তাতে আব্দুল গফফার গাজী .৯৬০ একর, গফুরননেছা .০২৩ একর এবং নুরজাহান বিবি .০১৭ একর জমির জমির মালিক উল্লেখ করা হয়েছে পর্চায় আব্দুল গফুরের কোন নাম নেই অথ্যাৎ প্রিন্ট  পর্চা মাঠ জরিপের পর্চাকে আত্মগোপন করে আদালতকে ভুল তথ্য দিয়ে উক্ত জমির উপর ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে তাই জমির মালিকসহ এলাকাবাসির আদালতের প্রতি বিনীত দাবি সরজমিনে তদন্ত দিয়ে সত্যতা প্রমান করে প্রকৃত মালিককে জমিটি বুঝিয়ে দেয়া হোক এবং এই নকল পর্চা বানানো প্রতারক চক্রকে চিহিৃত করে আইনের আওতায় আনা হোক এব্যাপারে আব্দুল গফফারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি