কলারোয়ায় চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষিত, গ্রেপ্তার-১

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়ায় চতুর্থ শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে কলারোয়া উপজেলার কুশডাঙা ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার সকালে পুলিশ ধর্ষণের অভিযোগে আজিজুল সরদার নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারও করেছে।
গ্রেপ্তারকৃত আজিজুল কুশডাঙ্গা গ্রামের মৃত জিয়া উদ্দিন সরদারের ছেলে। স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ তার বিরুদ্ধে।
স্কুল ছাত্রীর মা জানান, গত মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ির পার্শ্ববর্তী গাজীর মাঠে তার মেয়ে সরিষার ফুল তুলতে যায়। এসময় আজিজুল সরদার তাকে কৌশলে আলু ক্ষেতে ডেকে নিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে মাঠে কর্মরত পারিকুপি গ্রামের আনছার আলী, আনেছা খাতুন, ফরিদা খাতুন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে তাকে খবর দেন।
কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার নাথ জানান, নির্যাতিত স্কুল ছাত্রীর মা বাদি হয়ে আজিজুল সরদারের নাম উল্লেখ করে মঙ্গলবার রাতেই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেছেন। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে ২২ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণের কাজ শেষ হয়েছে।

নতুন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীকে এমপি রবির অভিনন্দন

আব্দুর রহিম: সরকারের গতিশীলতা বাড়ানো, প্রশাসনিক কর্ম তৎপরতা বাড়াতে মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণে মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ পূর্ণমন্ত্রী, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শাহজাহান কামাল সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ মোস্তফা জব্বার ডাক, টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এবং রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে সম্ভাব্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ শপথ নেওয়া মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সদর-০২ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।

 

কৈখালী ফরেস্ট স্টেশনের উদ্যোগে কুমিরের বাচ্চা অবমুক্ত

রমজাননগর (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: শ্যামনগর উপজেলার পশ্চিম সুন্দরবনের আওতাধীন কৈখালী ফরেস্ট স্টেশনের উদ্যোগে একটি কুমিরের বাচ্চা অবমুক্ত করা হয়। ফরেস্ট স্টেশন সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে সীমান্ত নদী কালিন্দীর বাঁশঝাড়িয়া এলাকায় জেলেদের জালে একটি কুমিরের বাচ্চা আটক হয়। জেলেরা তাৎক্ষণিক বাচ্চা কুমিরটিকে বাঁশঝাড়িয়া বিজিবি ক্যাম্পে জমা দেয়। কৈখালী বিজিবির কোম্পানী কমান্ডার বিষয়টি জানার পরে কৈখালী ফরেস্ট স্টেশনের সহকারী কর্মকর্তা এস. কবিরকে অবগত করেন। তাৎক্ষনিক এস. কবির বাঁশঝাড়িয়া বিজিবি ক্যাম্পে উপস্থিত হয়ে কুমিরের বাচ্চাটি এনে কৈখালী ফরেস্ট ও বিজিবি সংলগ্ন সুন্দরবনের অভ্যন্তরে মাদার নদীতে কৈখালী বিজিবির কোম্পানী কমান্ডার, ফরেস্ট কর্মকর্তা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতে অবমুক্ত করেন।

কেন্দ্রিয় কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের সাথে পৌর নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়

বাংলাদেশ কৃষকলীগ কেন্দ্রিয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, খুলনা বিভাগীয় কৃষকলীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আতিকুল হক (আতিক) এর সাথে সাতক্ষীরা পৌর শাখা কৃষকলীগের এক সাংগঠনিক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিনেরপোতাস্থ সাতক্ষীরা কৃষি ইন্সটিটিউটের সম্মেলন কেন্দ্রে এ মতবিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহা জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম, সাতক্ষীরা জেলা কৃষকলীগের সভাপতি বিশ্বজিৎ সাধু, সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ হেদায়েতুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক আফজাল হোসেন। কেন্দ্রিয় নেতার উদ্দেশ্যে সাতক্ষীরা পৌর কৃষকলীগের সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে বক্তব্য রাখেন পৌর কৃষকলীগের আহবায়ক সাবেক ছাত্র ও যুব নেতা মো. সামছুজ্জামান জুয়েল। যুগ্ম আহবায়ক সাবেক যুব নেতা শাহ মো. আনারুল ইসলাম। পৌর কৃষকলীগ নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে কেন্দ্রিয় নেতাকে জানান, ইতোমধ্যে সাতক্ষীরা পৌর শাখা কৃষকলীগের ৯টি সাংগঠনিক ওয়ার্ড কমিটির মধ্যে ৮টি ওয়ার্ড কমিটির কাউন্সিল সম্মেলনের মাধ্যমে গঠন করা হয়েছে। বাকী থাকা একটি ওয়ার্ড কমিটির সম্মেলন হলে পরে পৌর শাখা কৃষকলীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলের জন্য তারিখ চাওয়া হবে।
কেন্দ্র্রিয় নেতা বলেন, কৃষক বাচঁলে দেশ বাচঁবে। দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখতে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের ভোট চেয়ে কৃষকলীগের নেতাকর্মীদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার উদাত্ত আহবান জানান। মতবিনিময় সভায় পৌর ও ওয়ার্ড কৃষকলীগের নেতৃস্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সাতক্ষীরা পৌর শাখা কৃষকলীগের পক্ষ থেকে কেন্দ্রিয় নেতাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

হুমকির মুখে ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠ ও শহীদ মিনার

পত্রদূত ডেস্ক: স্বার্থবাদী মহলের স্বার্থসিদ্ধির কারণে চরম হুমকির মুখে পড়েছে ঐতিহ্যবাহী এক খেলার মাঠ ও চেতনার সূতিকাগার শহীদ মিনার। খেলার মাঠ হতে যাচ্ছে আবাদী জমি ও অবমাননা করা হচ্ছে শহীদ মিনারকেও। জেলার তালা উপজেলার খলিষখালী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী গ্রাম বাগমারা। এই গ্রামসহ আশপাশের এলাকার তরুণদের একমাত্র বিনোদন কেন্দ্র ও খেলার মাঠ বাগমারা দক্ষিণপাড়ার বাবুর মাঠ নামে বহুল পরিচিত। কিন্তু কতিপয় ব্যক্তি তাদের অবৈধ স্বার্থকে চরিতার্থ করার জন্য এই ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠকে জোরপূর্বক স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় চাষযোগ্য জমিতে পরিণত করেছে। এলাকায় কোন মাঠ না থাকায় গ্রামের ছেলেমেয়েদের বিনোদনের কথা বিবেচনা করে স্থানীয় জমিদার বাবু ২০-২৫ বছর আগে তার জমিদার বাড়ির সামনে একটি খেলার মাঠ তৈরি করেন এবং খেলাপ্রিয় যুবসমাজের উদ্দেশ্যে মাঠটি উৎসর্গ করেন। বাগমারা গ্রামের যুবসামাজ অনুশীলনসহ কয়েক বছর আগে এখানে একটি শহীদ মিনারও স্থাপন করেন।
এই শহীদ মিনারে প্রতিবছর নিয়ম অনুযায়ী শহীদদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করাসহ নানাবিধ সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করা হয়। কিন্তু বর্তমানে জমিদারের বংশধররা কেউ বেঁচে না থাকায় এলাকার কিছু ক্ষমতাধর ব্যক্তি জমিদারের ১৫০ বিঘা জমি দখল করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি। তারা ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠ তাদের দলবল নিয়ে ট্রাক্টর দিয়ে চাষ করেছে এবং রাতারাতি মাঠে অবস্থিত শহীদ মিনারটিকেও নিশ্চিহ্ন কারার পরিকল্পনা করছে। ইতোমধ্যে মাঠ দখলের উদ্দেশ্য চারপাশে বেড়াও দিয়েছে। এলাকাবাসির ভাষ্যমতে এই খেলার মাঠ ছিল এলাকার তরুণ সমাজসহ সকল শ্রেণিপেশার মানুষের একটা খেলাধুলা ও বিনোদন কেন্দ্র। বিভিন্ন মৌসুমে এখানে ক্রিকেট, ফুটবল ব্যাডমিন্টন হা-ডু-ডু খেলার আয়োজন করা হতো। বর্তমানে গ্রামের যুবসমাজ খেলার মাঠ চাষ করাই চরম হতাশায় ভুগছে এবং তারা আর আগের মত এখানে অনুশীলন করতে পারছে না এবং এখানে খেলার জন্য যে আসবে তাকে মামলায় ঢুকিয়ে দেওয়ার ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়টি জানানোর পরেও তারা নির্বাক ভুমিকা পালন করছে। যদি খেলার মাঠটি স্বার্থবাদী মহলের হাত থেকে উদ্ধার করা না হয়, তবে হয়তো আর কোনদিন এই মাঠে কেউ খেলার সুযোগ পাবে না, মাঠটি বিলুপ্ত হবে এবং শহীদ মিনারটিও অতি শিঘ্রই নিশ্চিহ্ন করা হবে। সুতরাং বিভাগীয় কমিশনারসহ প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দের আকুল দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকাবাসি। যেন খেলার মাঠটি অবৈধ দখলের হাত থেকে রক্ষা পায় এবং শহীদ মিনারটি নিশ্চিহ্নের হাত থেকে রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জোর দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসি।

জাতীয় তায়কোয়ানডো চ্যাম্পিয়নশিপে সাতক্ষীরার স্বর্ণসহ আটটি মেডেল জয়

ক্রীড়া ডেস্ক: রাজধানীর জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ জিমনেশিয়ামে ট্রাস্ট ব্যাংক ১৫তম জাতীয় সিনিয়র-জুনিয়র তায়কোয়ানডো চ্যাম্পিয়নশিপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৮ ডিসেম্বর শুরু হয় তায়কোয়ানডো চ্যাম্পিয়নশিপ। সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার তায়কোয়ানডো প্রশিক্ষক আল-ইমরানের নেতৃত্বে ৮ সদস্যের দল ৩ দিন ব্যাপী জাতীয় টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহন করে ২টি স্বর্ণ, ২টি রৌপ্য ও ৪টি তাম্র পদক জয় লাভ করেন। পদক প্রাপ্ত খেলোয়াড় আল- ইমরান (স্বর্ণ) হাফিজুল ইসলাম (স্বর্ণ), মাহাফুজ গাজী (রৌপ্য), শাকিবুজ্জামান (রৌপ্য), নাঈম মাহামুদ (তাম্র), কাজী খালিদ উদ্দিন (তাম্র) গোলাম কুদ্দুস (তাম্র) ও রাকিব হোসেন (তাম্র)। দলের প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন আল-ইমরান ও টিম ম্যানেজার ছিলেন রবিউল ইসলাম।
সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সকল কর্মকর্তা ও সদস্যদের পক্ষ থেকে সাধারণ সম্পাদক একেএম আনিছুর রহমান সকল খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। এছাড়া সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন বিজয়ীদেরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

জাতীয় তায়কোয়ানডো চ্যাম্পিয়নশিপে সাতক্ষীরার স্বর্ণসহ আটটি মেডেল জয়

 

 

ক্রীড়া ডেস্ক: রাজধানীর জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ জিমনেশিয়ামে ট্রাস্ট ব্যাংক ১৫তম জাতীয় সিনিয়রজুনিয়র তায়কোয়ানডো চ্যাম্পিয়নশিপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৮ ডিসেম্বর শুরু হয় তায়কোয়ানডো চ্যাম্পিয়নশিপ। সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার তায়কোয়ানডো প্রশিক্ষক আলইমরানের নেতৃত্বে সদস্যের  দল  দিন ব্যাপী জাতীয় টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহন করে ২টি স্বর্ণ, ২টি রৌপ্য ৪টি তাম্র পদক জয় লাভ করেন। পদক প্রাপ্ত খেলোয়াড় আলইমরান (স্বর্ণ) হাফিজুল ইসলাম (স্বর্ণ), মাহাফুজ গাজী (রৌপ্য), শাকিবুজ্জামান (রৌপ্য), নাঈম মাহামুদ (তাম্র), কাজী খালিদ উদ্দিন (তাম্র) গোলাম কুদ্দুস (তাম্র) রাকিব হোসেন (তাম্র) দলের প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন আলইমরান টিম ম্যানেজার ছিলেন রবিউল ইসলাম।

 

সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সকল কর্মকর্তা সদস্যদের পক্ষ থেকে সাধারণ সম্পাদক একেএম আনিছুর রহমান সকল খেলোয়াড় কর্মকর্তাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।

এছাড়া সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন বিজয়ীদেরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

হুমকির মুখে ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠ ও শহীদ মিনার

 

পত্রদূত ডেস্ক: স্বার্থবাদী মহলের স্বার্থসিদ্ধির কারণে চরম হুমকির মুখে পড়েছে ঐতিহ্যবাহী এক খেলার মাঠ চেতনার সূতিকাগার শহীদ মিনার। খেলার মাঠ হতে যাচ্ছে আবাদী জমি অবমাননা করা হচ্ছে শহীদ মিনারকেও। জেলার তালা উপজেলার খলিষখালী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী গ্রাম বাগমারা। এই গ্রামসহ আশপাশের এলাকার তরুণদের একমাত্র বিনোদন কেন্দ্র খেলার মাঠ বাগমারা দক্ষিণপাড়ার বাবুর মাঠ নামে বহুল পরিচিত। কিন্তু কতিপয় ব্যক্তি তাদের অবৈধ স্বার্থকে চরিতার্থ করার জন্য এই ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠকে জোরপূর্বক স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় চাষযোগ্য জমিতে পরিণত করেছে। এলাকায় কোন মাঠ না থাকায় গ্রামের ছেলেমেয়েদের বিনোদনের কথা বিবেচনা করে স্থানীয় জমিদার বাবু ২০২৫ বছর আগে তার জমিদার বাড়ির সামনে একটি খেলার মাঠ তৈরি করেন এবং খেলাপ্রিয় যুবসমাজের উদ্দেশ্যে মাঠটি উৎসর্গ করেন। বাগমারা গ্রামের যুবসামাজ অনুশীলনসহ কয়েক বছর আগে এখানে একটি শহীদ মিনারও স্থাপন করেন।

এই শহীদ মিনারে প্রতিবছর নিয়ম অনুযায়ী শহীদদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করাসহ নানাবিধ সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করা হয়। কিন্তু বর্তমানে জমিদারের বংশধররা কেউ বেঁচে না থাকায় এলাকার কিছু ক্ষমতাধর ব্যক্তি জমিদারের ১৫০ বিঘা জমি দখল করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি। তারা ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠ তাদের দলবল নিয়ে ট্রাক্টর দিয়ে চাষ করেছে এবং রাতারাতি মাঠে অবস্থিত শহীদ মিনারটিকেও নিশ্চিহ্ন কারার পরিকল্পনা করছে। ইতোমধ্যে মাঠ দখলের উদ্দেশ্য চারপাশে বেড়াও দিয়েছে। এলাকাবাসির ভাষ্যমতে এই খেলার মাঠ ছিল এলাকার তরুণ সমাজসহ সকল শ্রেণিপেশার মানুষের একটা খেলাধুলা বিনোদন কেন্দ্র। বিভিন্ন মৌসুমে এখানে ক্রিকেট, ফুটবল ব্যাডমিন্টন হাডুডু খেলার আয়োজন করা হতো। বর্তমানে গ্রামের যুবসমাজ খেলার মাঠ চাষ করাই চরম হতাশায় ভুগছে এবং তারা আর আগের মত এখানে অনুশীলন করতে পারছে না এবং এখানে খেলার জন্য যে আসবে তাকে মামলায় ঢুকিয়ে দেওয়ার ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়টি জানানোর পরেও তারা নির্বাক ভুমিকা পালন করছে। যদি খেলার মাঠটি স্বার্থবাদী মহলের হাত থেকে উদ্ধার করা না হয়, তবে হয়তো আর কোনদিন এই মাঠে কেউ খেলার সুযোগ পাবে না, মাঠটি বিলুপ্ত হবে এবং শহীদ মিনারটিও অতি শিঘ্রই নিশ্চিহ্ন করা হবে। সুতরাং বিভাগীয় কমিশনারসহ প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দের আকুল দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকাবাসি। যেন খেলার মাঠটি অবৈধ দখলের হাত থেকে রক্ষা পায় এবং শহীদ মিনারটি নিশ্চিহ্নের হাত থেকে রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জোর দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসি।

বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের জেলা সহ-সভাপতি সামাদ খানের সয্যাপাশে জেলা নেতৃবৃন্দ

 

বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ জেলা শাখার সহসভাপতি পৌর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা মো. আব্দুস সামাদ খান শ্বাসকষ্ঠজনিত কারণে অসুস্থ হয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সোমবার দিবাগত রাত ৩টায় অসুস্থ হয়ে এ্যামবুলেন্স যোগে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে জরুরী বিভাগে চিকিৎসা নিয়ে পরবর্তিতে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়। অসুস্থ সামাদ খানের সয্যাপাশে হাজির হন বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জেলা শাখার সভাপতি এড. আল মাহমুদ পলাশ, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুর রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ্ মো. সাইফুল ইসলাম, পৌর সভাপতি আব্দুল আলিম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, প্রচার সম্পাদক মো. হাফিজ দপ্তর সম্পাদক মামুন আহমেদ, সদর উপজেলা আহবায়ক আসাদুজ্জামান মনিরুল ইসলাম প্রমুখ।

বিজিবি সংলগ্ন সুন্দরবনের অভ্যন্তরে মাদার নদীতে কৈখালী বিজিবির কৈখালী ফরেস্ট স্টেশনের উদ্যোগে কুমিরের বাচ্চা অবমুক্ত

 

রমজাননগর (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: শ্যামনগর উপজেলার পশ্চিম সুন্দরবনের আওতাধীন কৈখালী ফরেস্ট স্টেশনের উদ্যোগে একটি কুমিরের বাচ্চা অবমুক্ত করা হয়। ফরেস্ট স্টেশন সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে সীমান্ত নদী কালিন্দীর বাঁশঝাড়িয়া এলাকায় জেলেদের জালে একটি কুমিরের বাচ্চা আটক হয়। জেলেরা তাৎক্ষণিক বাচ্চা কুমিরটিকে বাঁশঝাড়িয়া বিজিবি ক্যাম্পে জমা দেয়। কৈখালী বিজিবির কোম্পানী কমান্ডার বিষয়টি জানার পরে কৈখালী ফরেস্ট স্টেশনের সহকারী কর্মকর্তা এস. কবিরকে অবগত করেন। তাৎক্ষনিক  এস. কবির বাঁশঝাড়িয়া বিজিবি ক্যাম্পে উপস্থিত হয়ে কুমিরের বাচ্চাটি এনে কৈখালী ফরেস্ট কোম্পানী কমান্ডার, ফরেস্ট কর্মকর্তা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতে অবমুক্ত করেন।

সখিপুরের গুলিবিদ্ধ ইউপি চেয়ারম্যান রতনকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় প্রেরণ

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: দেবহাটায় গুলিবিদ্ধ ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন রতনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বুধবার ( জানুয়ারি) দুপুর ১টায় সাতক্ষীরা স্টেডিয়াম থেকে তাকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের উদ্দেশে যাত্রা করে। ফারুক হোসেন রতন দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সখিপুর ইউপি চেয়ারম্যান।

জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আবু আহমেদ জানান, রাতে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের চিকিৎসকরা প্রায় চার ঘণ্টা অস্ত্রপচারের পর তার বুকে বিদ্ধ গুলি অপসারণ করতে সক্ষম হয়। চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হলো।

এদিকে, রতনকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকায় পাঠানোর সময় সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী  উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে, দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সখিপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন রতনকে গুলি করে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় প্রতিবাদ সমাবেশ আহবান করেছে দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগ।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ( জানুয়ারি) রাত ৯টার দিকে দেবহাটা উপজেলার সখিপুর বাজার থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফেরার পথে নিজ বাড়ির সামনে আওয়ামী লীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান রতনকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে  দুর্বৃত্তরা। সময় তিনি বুকে গুলিবিদ্ধ হন। প্রথমে তাকে দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

প্রতিবন্ধী স্কুলের শিক্ষার্থীকে দেখতে গেলেন এমপি রবি

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি প্রতিবন্ধী স্কুলের শিক্ষার্থী স্বর্গ মন্ডলকে দেখতে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে গেলেন প্রতিবন্ধী স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সাতক্ষীরা০২ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। গত ০১ জানুয়ারী প্রচন্ড ¦ খিচুনি রোগে আক্রান্ত হলে তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার সকালে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে শহরের পারকুকরালী এলাকার গরীব ভ্যান চালক রনজিৎ মন্ডলের ছেলে স্বর্গ মন্ডলকে দেখতে যান এবং দায়িত্বরত চিকিৎসকদের কাছে চিকিৎসা শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন এবং শিক্ষার্থীর চিকিৎসার জন্য তার পক্ষ থেকে ব্যয় ভার বহনের আশ^াস প্রদান করেন মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি এমপি। পরে তিনি আইসি ইউতে একজন প্রবীণ শিক্ষককেও দেখতে যান এবং তার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন।

নতুন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীকে এমপি রবির অভিনন্দন

 

আব্দুর রহিম: সরকারের গতিশীলতা বাড়ানো, প্রশাসনিক কর্ম তৎপরতা বাড়াতে মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণে মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ পূর্ণমন্ত্রী, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শাহজাহান কামাল সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ মোস্তফা জব্বার  ডাক, টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এবং রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে সম্ভাব্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ শপথ নেওয়া মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সদর-০২ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।

তালায় এলজিইডি’র জলবায়ু পরিবর্তনে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ

 

তালা (সদর) প্রতিনিধি: তালা উপজেলায় এলজিইডি  আয়োজনে জলবায়ু পরিবর্তনে জনসচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার দুপুরে স্থানীয় উপজেলা পরিষদের হল রুমে প্রায় ৬০ জন্য প্রশিক্ষণার্থীকে উক্ত প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এডিবি জিওবি অর্থায়নে, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আফজাল হোসেনের সভাপতিত্ত্বে ফিল্ড মনিটরিং অফিসার . . সাফিনুল হকের সঞ্চলনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, সাতক্ষীরা (তালাকলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ইকতিয়ার হোসেন জেবুন্নেচ্ছা খানম(মহিলা), উপজেলা প্রকৌশলী কাজী আবু সাঈদ মো. জসীম। প্রশিক্ষক ছিলেন সরদার শফিকুল আলম একেএম লুৎফর রহমান। প্রশিক্ষণের সর্বিক পরিচালনা করেন কমিউনিটি অর্গানাইজার সুজাবোদ্দৌলা।

    

শ্যামনগরে জাতীয় সমাজসেবা দিবস পালিত

 

সুন্দরবনাঞ্চল (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: ‘নারী পুরুষ নির্বিশেষ, সমাজসেবায় গড়ব দেশ প্রতিপাদ্যকে সাথে নিয়ে বুধবার সকালে শ্যামনগর উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের আয়োজনে জাতীয় সমাজসেবা দিবস উপলক্ষে র‌্যালী আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা আসনের এমপি এসএম জগলুল হায়দার। শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজজামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সুজন সরকার,উপজেলা সমাজসেবা অফিসার শেখ সহিদুর রহমান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার দেবী রঞ্জন মন্ডল বিভিন্ন ক্লাব এনজিও প্রতিনিধিবৃন্দ প্রমুখ।