মাঠেই শক্তি দেখাবে আ.লীগ


প্রকাশিত : জানুয়ারি ৫, ২০১৮ ||

 

৫ জানুয়ারি (শুক্রবার) সারাদেশে রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এর মধ্যদিয়ে আবারও মাঠেই সাংগঠনিক শক্তি দেখাবে তারা। পাশাপাশি ৫ জানুয়ারি দিনটিকে বিতর্কিত করতে বিএনপির যে চেষ্টা, তা যেন হালে পানি না পায় সেদিকে বিশেষ নজর থাকবে ক্ষমতাসীনদের।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি বিএনপি-জামায়াত জোটের বাধার মধ্যেও অনুষ্ঠিত হয় দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। দিনটিকে গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবেই পালন করে আসছে ক্ষমতাসীনরা। এই দিনটিতে এবার বেশ আওয়াজ দিয়েই মাঠে নামার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ৫ জানুয়ারি সারাদেশে মাঠে নামবে দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মিরা। এটি মূলত বেশ বড় শো ডাউন হবে। ৫ জানুয়ারি দিয়ে শুরু করে নির্বাচন পর্যন্ত মাঠেই থাকবে আওয়ামী লীগ। দলটির একাধিক নীতি-নির্ধারকের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে। তারা বলছেন, সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডগুলো এসব কর্মসূচিতে তুলে ধরা হবে।

৫ জানুয়ারি দিনটি উপলক্ষে আওয়ামী লীগের যেসব কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে তা হলো- জেলা, মহানগর, উপজেলা ও থানা পর্যায়ে বিজয় র‌্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) দুপুর তিনটায় বনানী পূজা মাঠে আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর উত্তর এবং ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিজয় র‌্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

এছাড়া, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সব জেলা, মহানগর, উপজেলা ও থানা কমিটি ৫ জানুয়ারির অনুরূপ কর্মসূচি পালন করবে। দেশব্যাপী এই কর্মসূচিতেও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা অংশগ্রহণ করবেন।

জানা গেছে, ৫ জানুয়ারি কোনও রাজনৈতিক সংগঠন যাতে কোথাও কোনও কর্মসূচি পালন, বা সরকারবিরোধী অবস্থান নিতে না পারে, সে বিষয়েও বিশেষ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র রক্ষা দিবস উপলক্ষে কর্মসূচি পালন করা হবে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন গণতন্ত্রের জন্য মাইলফলক।’

জানতে চাইলে সভাপতিমণ্ডলীর আরেক সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘৫ জানুয়ারি দিনটি গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে পালন করতে সারাদেশে নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।’

আওয়ামী লীগের নীতি-নির্ধারকরা জানান, ৫ জানুয়ারি মাঠে নামার উদ্দেশ্য হলো কোনও মহল যাতে অতীতের মতো কোনও ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড করার সুযোগ না পায়। এই নীতি-নির্ধারকরা বলেন, তবে বিএনপি দিনটি উপলক্ষে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করতে চাইলে, আওয়ামী লীগের কোনও মাথাব্যাথা নাই। তবে মাঠে নেমে অস্থির পরিবেশ ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাইলে মাঠেই তাদের জবাব দেওয়া হবে।’

সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্যাহ বাংলা ট্রিবিউনকে এ বিষয়ে বলেন, ‘মাঠে সবাই শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করতে পারবে। তবে কোনও দল ইস্যু, বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে মাঠে নামলে মাঠেই প্রতিহত করতে হবে।’