জেলার মোড়ে মোড়ে পুলিশ: জনগণের জান-মাল ও সরকারের সম্পত্তি রক্ষার্থে জেলা পুলিশের ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৮ ||

আব্দুর রহমান: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায়কে ঘিরে সহিংসতার আশঙ্কায় জননিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় পুলিশের টহল গাড়ির সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে, পুলিশ চেক পোস্টের ব্যবস্থাও করা হয়েছে এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্নভাবে সতর্ক অবস্থানে আছেন। এছাড়া জেলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ দলীয় নেতাকর্মীরাও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করতে প্রস্তুত রয়েছে।
বুধবার (৭ফেব্রুয়ারি) শহরের চৌরঙ্গির মোড়, আমতলা মোড়, কদমতলা, ছয়ঘরিয়া বাজার, বাঁকালসহ প্রতিটি উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশী টহল জোরদার করা হয়েছে। মোড়ে মোড়ে অবস্থান নিয়েছে পুলিশের বিশেষ টিম।
উল্লেখ্য, আজ ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়কে ঘিরে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। রায় নিয়ে কোন রূপ বিশৃঙ্খলা যেন না ঘটে এ জন্য রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক নিরাপত্তা বলয় তৈরি করেছে প্রশাসন। এ রায়কে কেন্দ্র করে জনমনে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, যেকোনো ধরনের নাশকতা প্রতিহত করতে পুলিশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ বলেন, খালেদার রায়কে কেন্দ্র করে কোন ধরনের নাশকতা ও বিশৃঙ্খলা করলে ২০১৩ সালের মতো আওয়ামী লীগ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করতে মাঠে থাকবে।
জেলা পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান বলেন, আপনারা জানেন যে, ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার একটি রায়কে কেন্দ্র করে কিছু নাশকতাকারীরা তৎপর আছে। এজন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তথা জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জনগণের জান-মাল ও সরকারের সম্পত্তি রক্ষার্থে আমরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছি। আমি বিশ^াস করি এ জেলায় কোন ধরনের নাশকতা বা বিশৃঙ্খলা ঘটবে না।