টাকার অভাবে কোনও রোগী যেন চিকিৎসাবঞ্চিত না হন: রাষ্ট্রপতি


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৮ ||

 

টাকার অভাবে কোনও রোগী যাতে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত না হন চিকিৎসকদের সেবিষয়টি বিবেচনায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তাদের সঙ্গে ভালো আচরণের তাগিদ দিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেছেন, ‘রোগীরা হাসপাতালে অতিথি। ফলে তাদের সেবা প্রদানে বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে। যাতে আপনাদের খারাপ আচরণে কেউ ব্যাথিত না হয়।’ সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রাজধানীর শাহবাগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সাধারণ জনগণকে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে সবোর্চ্চ পেশাদারিত্ব এবং অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করার জন্য চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বার জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। তিনি বলেন, ‘চিকিৎসা দেওয়ার সময় জনগণের সক্ষমতা বিবেচনায় রাখতে হবে। অর্থাভাবে কোনও রোগী যেন চিকিৎসাবঞ্চিত না হন। চিকিৎসকদের ভুল চিকিৎসা ও দায়িত্বে অবহেলার ভয়াবহ শিকার হওয়ার কিছু ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে। এ ধরনের ঘটনায় চিকিৎসকদের এবং সংশ্লিষ্ট চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।’ বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ রোগীদের অধিক সেবা প্রদানের মানসিকতা নিয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালনে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘দেশে এখনও চিকিৎসক-রোগীর আনুপাতিক হার সমপরিমাণ নয়। তবে তারপরও স্বাস্থ্য সেবা পেতে যাতে জনগণকে হতাশ হতে না হয় এ জন্য চিকিৎসকদের সবোর্চ্চ প্রচেষ্টা থাকতে হবে।’ তিনি চিকিৎসক ও চিকিৎসা ব্যবস্থার ওপর জনগণের আস্থা অর্জনে সর্বশেষ আবিষ্কার ও প্রযুক্তি সম্পর্কে আরও জ্ঞান অর্জনের আহ্বান জানান চিকিৎসকদের প্রতি। রাষ্ট্রপতি তৃণমূল পর্যায়ে স্বাস্থ্য সুবিধা পৌঁছে দিতে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ই-সার্ভিস চালু করারও পরামর্শ দেন।

তিনি সদ্য গ্র্যাজুয়েটদের অভিনন্দন জানিয়ে মেধা ও চিকিৎসা জ্ঞান কাজে লাগিয়ে দেশ ও জনগণের জন্য কাজ করতে তাদের প্রতি আহ্বান জানান। রাষ্ট্রপতি চিকিৎসা ক্ষেত্রে নার্সদের ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। তারা যাতে আরও ভালো সেবা দিতে পারেন এ জন্য বিএসএমএমইউতে তাদের প্রশিক্ষণ ও উচ্চতর ডিগ্রি লাভের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

অনুষ্ঠানে সাত জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসককে চিকিৎসা ক্ষেত্রে তাদের অবদানের জন্য পিএইচডি ডিগ্রি দেওয়া হয়। ছয় শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য স্বর্ণপদক দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, কনভোকেশন বক্তা অধ্যাপক এএইচএম তৌহিদুল আনোয়ার চৌধুরী, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান এবং বিএসএমএমইউ’র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে কয়েকজন সংসদ সদস্য, সিনিয়র শিক্ষাবিদ, কূটনীতিক, সিনিয়র চিকিৎসক, সংশ্লিষ্ট সচিব, উচ্চ পদস্থ বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সূত্র: বাসস।