দেবহাটায় গ্রাম্য ডাক্তারকে হয়রানি: প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৮ ||

 

দেবহাটা ব্যুরো: দেবহাটার শিমুলিয়া এলাকার এক গ্রাম্য ডাক্তার ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে থানায় হয়রানীমূলক মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেছে একটি কুচক্রী মহল। হয়রানির প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভূক্তভোগী পরিবারটি। শনিবার বিকাল ৪টায় দেবহাটা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন উপজেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের শিমুলিয়া এলাকার গ্রাম্য চিকিৎসক এজাহার আলীর পুত্র আব্দুল মাজেদ। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ২০১৫ সালে একই ইউনিয়নের হোসেন ডাক্তারের পুত্র আনিছুর রহমান বকুলের কাছ থেকে রামনাথপুর মৌজায় সাড়ে ৭ শতক জমি ৭ লক্ষ টাকা দিয়ে ক্রয় করি। আমাদের চলাচলের পথ দেওয়ার কথা থাকলেও কিছু দিন যেতে না যেতেই যাতায়াতের পথে জিয়াদ আলীর স্ত্রী সাকিলা খাতুন (৪০)কে বসবাসের জন্য বসতবাড়ি নির্মাণ করে দেয় বকুল। এতে আমাদের চলাচলের পথটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হলে বিষয়টি বকুলকে জানাই। বকুল আমাদের পথ না দিয়ে তাদেরকে দিয়ে চলাচলের রাস্তায় বেড়া দিয়ে সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেয়। গত ২১ ফেব্রুয়ারি দুপুরে আমাদের ফসলের জমিতে ছাগল প্রবেশ করিয়ে ক্ষতি সাধন করছিল। এমন সময় আমি ছাগল তাড়া দিলে পূর্বপরিকল্পিতভাবে সাকিলা ও তার কন্যা রেশমা সুলতানা আমার উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে তারা মা মেয়ে বকুলের কু-পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে দেবহাটা থানায় একটি মিথ্যা লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। উক্ত বকুল থানা পুলিশ দিয়ে হয়রানী ও মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে ধরিয়ে দেওয়ার হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। উক্ত চক্রের হাত থেকে রেহাই পেতে পুলিশ সুপারসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।