পুলিশে চাকুরি দেয়ার নামে টাকা আত্মসাত: কেশবপুরে আওয়ামী লীগ নেতা ইব্রাহিম ও নুনু মেম্বর পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৮ ||

এম এ রহমান, কেশবপুর (যশোর): টাকা নিয়ে পুলিশের চাকুরি পাইয়ে না দেওয়ায় কেশবপুরে এক আওয়ামী লীগ নেতা ও এক মেম্বর পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে। এই ঘটনায় যশোর কোতয়ালী থানায় হায়দার আলী বাদী হয়ে একটি প্রতারনা মামলা দায়ের করে। যার নং-৭৪।
যশোর কোতয়ালী থানা সুত্রে জানা গেছে,কেশবপুর উপজেলার লাউতাড়া গ্রামের হায়দার মিস্ত্রির নাতনিকে ৮ লক্ষ টাকা চুক্তিতে পুলিশে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নৌকার পরাজিত প্রার্থী স্থানীয় হাড়িয়াঘোপ গ্রামের ঈমান আলীর ছেলে প্রতারক এ বি এম ইব্রহিম হোসেন ও তার সহযোগী ভান্ডারখোলা গ্রামের সালাম মোল্যার ছেলে সাবেক মেম্বর আজিজুল হক নুনু প্রতারণার মাধ্যমে অগ্রীম ৫ লক্ষ ৫ হাজার টাকা গ্রহণ করে। পুর্বঘোষণা অনুয়ায়ী গত ২২ ফেব্রুয়ারী যশোর পুলিশ লাইনে ঐ প্রার্থীর চাকুরী না হওয়ায় তাৎক্ষণিকভাবে যশোর কোতয়ালী থানার পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ লাইনের মাঠ থেকে প্রতারক আজিজুল হক নুনুকে থানার ওসি (তদন্ত) আবুল বাসার গ্রেপ্তার করে। পরে আসামীর তথ্য অনুযায়ী প্রতারক চক্রের মুল হোতা ইব্রাহিমকে শনিবার রাতে যশোর কতোয়ালী থানা পুলিশ কেশবপুর থানা পুলিশের সহযোগীতায় পৌর শহরের একটি ভাড়া বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। এবিষয়ে যশোর কোতয়ালী থনার ওসি (তদন্ত) আবুল বাসার জানান, প্রতারণা মামলায় আটক ২ জনকে রবিবার আদালাতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।