কলারোয়ায় দুর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহের প্রস্তুতিমূলক সভা

কলারোয়া প্রতিনিধি: দুর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ পালনের লক্ষ্যে কলারোয়া উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির এক প্রস্তুতমিূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে কলারোয়া সরকারি প্রাইমারি স্কুলে উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি প্রধান শিক্ষক আখতার আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় দুর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ পালনের বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আগামী ২৬ মার্চ থেকে ১ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় দুর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে: মানববন্ধন, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন, শপথ বাক্য পাঠ, দুর্নীতিবিরোধী কর্মশালা। যথাযথভাবে দুর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ পালনের বিষয়ে বক্তারা দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। সভায় আলোচনা করেন ও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমান, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব কাজী শামসুর রহমান ও লতিফা আখতার, সদস্য জাহিদুর রহমান খান চৌধুরী, শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, উৎপল কুমার সাহা ও সহকারী অধ্যাপক এএইচএম কামরুজ্জামান পলাশ।

খুলনায় পর্দা উঠলো বিবাহ মেলা’র: চলবে ১২ মার্চ পর্যন্ত

খুলনায় তৃতীয়বারের মতো শুরু হলো চার দিনব্যাপী ব্যতিক্রমী ‘বিবাহ মেলা’। বেসরকারি ফটোগ্রাফি হাউজ পার্পেল বার্ড ও ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট হাউজ আর্টিজমের যৌথ উদ্যোগে এ মেলার আয়োজক। শুক্রবার খুলনা নগরীর অভিজাত হোটেল ক্যাসেল সালামের গ্রান্ড বল রুমে এই মেলা উদ্বোধন হয়। মেলা উদ্বোধন করেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজান। এছাড়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন দৈনিক খুলনাঞ্চলের সম্পাদক মিজানুর রহমান মিল্টন,কালের কন্ঠের নিজস্ব প্রতিবেদক কৌশিক দে, খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেলসহ পার্পেল বার্ডের পরিচালক সনেট ফয়সাল, পরিচালক নূর এ নেওয়াজ শুভ, আশফাকুর রহমান ফাহিম, কাজী শান্ত, সাজিদ আহমেদ, শুভ খান, পলাশ, তাসনিম রহমান তুনান, আলাউদ্দিন, সাজিদ আহমেদ,ইসমাইল হোসেন লিটুসহ প্রতিষ্ঠান দুটির অন্যন্য সদস্যবৃন্দ। ব্যতিক্রমী এ মেলা চলবে ০৯, ১০, ১১ ও ১২ মার্চ প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত।
মেলায় থাকবে বিবাহ অনুষ্ঠানের ফটোগ্রাফি, সিনেমাটোগ্রাফি, এডিটিং, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, স্টেজ ডিজাইন, লাইটিং, ডিজেসহ বিভিন্ন সৃজনশীল কাজের চিত্র ও বর্ণনা উপস্থাপন করা হবে। মেলা চলাকালে ফ্রি ও ডিসকাউন্টের বিভিন্ন সুবিধা রয়েছে বুকিং ও আগতদের জন্য। এবারের মেলায় বিশেষ আকর্ষণ থাকবে, পার্পেল বার্ড ইএম আইই সুবিধা। যাতে করে দশ হাজার টাকার উপর সেবা গ্রহণ করলে গ্রাহকরা তিন, ছয়, নয় ও বারো মাসের সহজ কিস্তিতে টাকা পরিশোধ করতে পারবেন। মেলা চলাকালে যে কোন সময় পার্পেল বার্ড ও আর্টিজমের গ্রাহকরা সেবা গ্রহণ করলে পাবেন ১৫% ডিসকাউন্ট।
বিবাহ মেলার আহ্বায়ক ও পারপেল বার্ডের সিইও এসএম ইমরান হাসান বলেন, পারপেল বার্ড এবং আর্টিসম এর যাত্রা শুরু হয় ২০১৩ সালে। খুলনায় প্রথম ফটোগ্রাফি ও ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ফার্ম হিসেবে এই দু’টি প্রতিষ্ঠান আত্মপ্রকাশ করে। আমাদের এ কাজকে সবার সামনে তুলে ধরতে খুলনায় তৃতীয়বারের মতো ব্যতিক্রমধর্মী ‘বিবাহ মেলা’ শুরু করেছি আমরা। বিবাহ মেলার সদস্য সচিব ও আর্টিসমের সিইও তাহমিদ আহমেদ বলেন, মেলায় পার্পেল বার্ড-এর পক্ষ থেকে বিবাহের জমকালো ছবির প্রর্দশনী, আর্টিজমের পক্ষ থেকে বিবাহের বিভিন্ন সাজসজ্জার এবং স্টেজ’র প্রদশনী, পার্পেল বার্ড এর বিভিন্ন উপহার সামগ্রীর গিফট সপ, মেলা চলাকালে গ্রাহকরা কোনো সেবা গ্রহণ করলে ডিসকাউন্ট পাবেন।

দেবহাটায় ফেন্সিডিল ও গাজাসহ ৪ আটক

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটায় ফেন্সিডিলসহ ২ জন ও গাজাসহ ২ আসামী আটক হয়েছে। ফেন্সিডিল আটকের বিষয়ে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে আর গাজা সহ আটককৃতদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা প্রদান করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, বৃহষ্পতিবার রাতে দেবহাটা থানার এসআই নিত্য কুমার মন্ডল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবহাটা উপজেলার নাংলা এলাকা থেকে নাংলা গ্রামের মৃত হায়দান আলী গাজীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪২) ও একই গ্রামের আইয়ুব গাজীর ছেলে বাপ্পী গাজী (২৮) কে ৪০ বোতল ফেন্সিডিল সহ আটক করেন। এ ব্যাপারে এসআই নিত্য কুমার মন্ডল বাদী হয়ে আটককৃত ২ জন ছাড়াও ৭ জন মোট ৯ জনকে আসামী করে দেবহাটা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-৬, তাং-৯-৩-১৮। এছাড়া দেবহাটা থানার এসআই আব্দুল কাদের ও এএসআই আমজাদ হোসেন সখিপুর মহিলা কলেজের সামনে থেকে কালীগঞ্জ উপজেলার রতনপুর পীরগঞ্জ গ্রামের মৃত রশিদ গাজীর ছেলে খলিলুর রহমান (৪২) ও শ্যামনগর উপজেলার নকিপুর গৌরিপুর এলাকার আহারুল ইসলামের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৫১) কে ১০০ গ্রাম গাজাসহ আটক করেন। তাদেরকে দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাফিজ-আল আসাদ ভ্রাম্যমাণ আদালতে প্রত্যেককে ৯ মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

কালিগঞ্জে সার্বজনীন মহাশ্মশান কালীপূজা উৎসবে পদাবলী কীর্তন পরিবেশন

বিশেষ প্রতিনিধি: কালিগঞ্জের ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের পূর্ব নারায়নপুর মহাশ্মশানে চারদিনব্যাপী সার্বজনীন কালীপূজা উৎসব শুক্রবার পদাবলী কীর্তন পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ধর্মীয় বিধানমতে সার্বজনীন মহাশ্মশান কালীপূজা ৬মার্চ মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়। শুক্রবার উৎসবের শেষ দিনে পদাবলী কীর্তন পরিবেশন করেন ভারতের কলকাতার রাধা-গোবিন্দ সম্প্রদায়ের প্রণব ঘোষ এবং কলকাতার রাধাকৃষ্ণ সম্প্রদায়ের পৌরমিলা দাশী। মহাশ্মশান কমিটি ও স্থানীয় যুব সংঘের উদ্যোগে বালক কীর্তন এবং ধর্মীয় গানের আয়োজন করা হয়।

তালায় সেকেন্দার মেলার উদ্বোধন

তালা (সদর) প্রতিনিধি: তালার তেঁতুলিয়ায় মাসব্যাপি সেকেন্দার মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় কবি সেকেন্দার আবু জাফর এর পৈত্রিক ভিটা তেঁতুলিয়া হাশেমী বাড়ি সংলগ্ন মাঠে এ মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে নবাগত জেলা প্রশাসক ইফতেখার হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাবেক প্রতি মন্ত্রী সৈয়দ দিদার বখ্ত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অতিকুল হক, তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদ হোসেন, তালা থানা অফিসার ইনচার্জ হাসান হাফিজুর রহমান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেবুন্নেচ্ছা প্রমুখ।

শ্যামনগরে মশক নিধন কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন এমপি জগলুল হায়দার

শ্যামনগর (সদর) প্রতিনিধি: শ্যামনগরে মশক নিধন কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করলেন সাতক্ষীরা ৪ আসনের এমপি এসএম জগলুল হায়দার। শুক্রবার বিকাল ৫টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্তরে নিজে কাঁধে করে মশক নিধন যন্ত্রের মাধ্যমে মশকের উৎপত্তি স্থলে ¯েপ্র করে কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান, থানা অফিসার ইনচার্চ সৈয়দ মান্নান আলী, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আব্দুল গফুর, আবাসিক মেডিকেল অফিসার আনিছুর রহমান সহ সকল সরকারী কর্মকর্তা, কর্মচারী ও স্থানীয় সর্বসাধারণ মশক নিধন কার্যক্রম অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

কালিগঞ্জে বিদুৎস্পৃষ্টে শ্রমজীবি বৃদ্ধের মৃত্যু

বিশেষ প্রতিনিধি: কালিগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে আব্দুর রউফ (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার রতনপুর ইউনিয়নের গড়–ইমহল গ্রামের মৃত কালু গাজীর ছেলে।
নিহতের স্বজনরা জানান, শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে আব্দুর রউফ বাড়ির পাশর্^বর্তী একটি তালগাছে বাঁশ বাঁধছিলেন। অসাবধানতাবশত: ওই কাঁচা বাঁশ বিদ্যুতের মূল সঞ্চালন লাইনের তারের সাথে স্পর্শ করলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। ৩ কন্যা সন্তানের জনক আব্দুর রউফের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া বিরাজ করছে।

বঙ্গবন্ধু ছিলেন এ দেশের মানুষের বড় শিক্ষক: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী

খুলনা অফিস: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান এমপি বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন বাঙালি জাতির সবচেয়ে বড় শিক্ষক। বাঙালি জাতি তাঁর নেতৃত্বের প্রতি যে আস্থা ও ভালবাসা রেখেছিলো, তিনি দেশ স্বাধীনের মধ্যদিয়ে তার প্রমাণ দিয়েছেন। মন্ত্রী শুক্রবার রাতে খুলনা পিটিআই মিলনায়তনে প্রশিক্ষণার্থী শিক্ষকদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার ও সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু যেমন সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জন করেছিলেন। তেমনি তাঁর আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অভিভাবদের আস্থা অর্জন করতে হবে। সাধারণ মানুষ যেন ভেবে নিতে পারে সরকারি স্কুলে তাদের বাচ্চাদের দিলে তারা সুশিক্ষায় মানুষের মত মানুষ হয়ে উঠবে। এজন্য তিনি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিজের সন্তানের মত মনে করে পাঠদানে আন্তরিক হওয়ার পরামর্শ দেন।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মানসম্মত শিক্ষা কার্যক্রমকে সফল করতে শিক্ষকদের প্রতি তিনটি উদ্ভাবনী পরামর্শ প্রদান করেন। প্রথমটি হচ্ছে, মিড ডে মিল কার্যক্রমকে স্থায়ী রূপ দিতে প্রতিটি বাচ্চার মা যাতে প্রতিদিন তার সন্তানকে স্কুলে পাঠানোর সময় একটি টিফিন বাটিতে তার সাধ্যমত দুপুরের খাবার দিয়ে দেয় সেজন্য উৎসাহিত করা। দ্বিতীয় হলো, যেসব স্কুলে শিক্ষক সংকট রয়েছে সেসব স্কুলের শিক্ষার্থীদের মায়েদের ডেকে আলোচনার মাধ্যমে শিক্ষিত মাদের খুঁজে বের করে মায়েদের দ্বারা পাঠদানের পদ্ধতি চালু করা। তৃতীয় হলো, স্কুলের শ্রেণি কক্ষকে দৃষ্টি নন্দন ও আকর্ষণীয় করার জন্য স্থানীয় বিত্তশালী অভিভাবকদের সহযোগিতা নেয়া।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক রমজান আলী, মন্ত্রীর একান্ত সচিব আতাহার হোসেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক বিজয় ভূষন পাল ও খুলনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রমেন্দ্রনাথ পোদ্দার। এতে সভাপতিত্ব করেন পিটিআই’র সুপারিনটেনডেন্ট সৈয়দা ফেরদৌসী বেগম। পরে প্রধান অতিথি বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

সদর উপজেলা তিনটি শ্রমিক ইউনিয়নের যৌথ মতবিনিময়

সদর উপজেলা তিনটি শ্রমিক ইউনিয়নের যৌথ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শ্রমিক সংগঠনগুলো হচ্ছে সদর উপজেলা রং পালিশ শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি: নং- খুলনা ২২১৭), সদর উপজেলা বোর্ড ফার্নিচার শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি: নং- খুলনা ২২৩৪) ও সদর উপজেলা ফার্নিচার ও রং শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি: নং খুলনা-২০২৬)। শুক্রবার রাত ৮টায় কামালনগরস্থ সদর উপজেলা বোর্ড ফার্নিচার এর নিজস্ব কার্যালয়ে অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সদর উপজেলা বোর্ড ফার্নিচার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জামাল আহম্মেদ বাদল। সদর উপজেলা রং পালিস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ফারুকুজ্জামান ফারুকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা ফার্নিচার ও রং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ইউসুফ আলী সরদার, সহ-সভাপতি আসাদুল ইসলাম, আনারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলিম, দপ্তর সম্পাদক কামাল হোসেন, ক্রীড়া সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম, সমাজকল্যান সম্পাদক আব্দুল গফ্ফার, কার্যনির্বাহী সদস্য ইসমাইল হোসেন। সদর উপজেলা বোর্ড ফার্নিচার শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আঃ ছালাম, কোষাধ্যক্ষ ইকবাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক সজিব, প্রচার সম্পাদক গফুর, কার্যনির্বাহী সদস্য রবিউল ইসলাম। সদর উপজেলা রং পালিশ শ্রমিক ইউণিয়নের সভাপতি জুম্মান আলী সরদার, সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ বাবুল আক্তার, প্রচার সম্পাদক রেজাউল হক, কার্যনির্বাহী আব্দুল হামিদ প্রমুখ। এসময় সংগঠনের সদস্যদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবানসহ নিজ নিজ সংগঠনের আওতাভুক্ত সদস্যদেরকে পরিচয়পত্র সংগ্রহের জন্য সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

লাবসা ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি হান্নান বহিস্কার

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে লাবসা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মেম্বর আব্দুল হান্নানকে বহিস্কার করা হয়েছে। গত ৭ মার্চ লাবসা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এক জরুরি সভায় চেয়ারম্যান আব্দুল আলিমের দুর্নীতির পক্ষালম্বন ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তাকে বহিস্কার করা হয়। সভায় লাবসা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এড. মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ আবু সুফিয়ান সজলসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

আশাশুনিতে ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রীর আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি প্রদান: গ্রেপ্তার এক

পত্রদূত রিপোর্ট: আশাশুনি উপজেলার কুল¬্যা ইউনিয়নের একটি গ্রামের চতুর্থ শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় হুমকি দেয়ার অভিযোগে বানু বেগম নামের এক নারীকে বৃহস্পতিবার রাতে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার স্কুল ছাত্রী আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেছে। সাতক্ষীরার আমলী আদালত-২ এর বিচারক রাজীব কুমার রায় এ জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এদিকে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করলে ফল ভাল হবে না বলে ধর্ষিতার পরিবারকে হুমকি দেওয়ায় বানু বেগম নামের এক নারীকে বৃহস্পতিবার রাতে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত বানু বেগম আশাশুনি উপজেলার পুরহিতপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী। আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিদুল ইসলাম শাহিন জানান, উপজেলার স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ৪ মার্চ সন্ধ্যায় বাড়ির পাশে টিউবওয়েলে পানি আনতে গেলে পুরোহিতপুর গ্রামের মৃত শহর আলী সরদারের ছেলে মোহাম্মাদ আলী (৫৫) তাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বাড়ির পাশে একটি আম বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। বিষয়টি মীমাংসা করে নেওয়ার জন্য স্থানীয়ভাবে ছাত্রীর পরিবারকে চাপ দেওয়া হয়। একপর্যায়ে শালিসী সভা ডাকায় ধর্ষকের স্ত্রী ধর্ষিতার পরিবারের সদস্যদের খুন জখম করার হুমকি দেয়। বৃহস্পতিবার রাতে ওই ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে মোহাম্মাদ আলি ও তার স্ত্রীকে বানু বেগমকে আসামী করে আশাশুনি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় একটি মামলা দায়েরে করেন। বৃহস্পতিবার রাতেই পুলিশ ধর্ষকের স্ত্রী বানু বেগমকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়। মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল ও ২২ ধারায় জবানবন্দির জন্য শুক্রবার আদালতে পাঠানো হয়। সাতক্ষীরা পুলিশ কোর্টের পরিদর্শক আশরাকুল বারী জানান, সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে বিচারক রাজীব রায়ের কাছে ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে ওই ছাত্রী।

তালা উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির বার্ষিক বনভোজন ও পূন:মিলনী সভা

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি: তালা উপজেলা সহকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির বার্ষিক বনভোজন ও পূন:মিলনী সভা শুক্রবার তালা উপজেলার ইসলামকাটি খোলা জানালা ইকোপার্কে অনুষ্ঠিত হয়। পূন:মিলণী সভা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আব্দুর রব পলাশের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তালা কলারোয়ার এমপি এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ দিদার বখত। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে তালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক প্রনব ঘোষ বাবলু, ইসলামকাটি ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুভাষ চন্দ্র সেন, নগরঘাটা ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান লিপু, তালা সদর চেয়ারম্যান সরদার জাকির হোসেন, জেলা পরিষদ সদস্য কাজী নজরুল ইসলাম হিল্লোল, সমিতির সহ-সভাপতি অলিউল ইসলাম, সঞ্জয় দাস, ফারুক হোসেন প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার ইমরান আহমেদ।

সকল পর্যায়ের শিশুদের শিক্ষার অধিকার রয়েছে: জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন

নবাগত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন বলেছেন, সকল পর্যায়ের শিশুদের শিক্ষার অধিকার রয়েছে। যে সকল শিশু দিনের বেলায় শিক্ষার আলো হতে বঞ্চিত তাদের জন্য নৈশকালীন শিক্ষা ব্যবস্থা একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষায় অনগ্রসর, ঝরেপড়া, পথশিশু, কর্মজীবী ও প্রান্তিক সুবিধাবঞ্চিত শিশু যারা দিনের বেলায়  লেখাপড়ার সুযোগ পায় না তাদের জন্য সাতক্ষীরা জেলার একমাত্র বিশেষায়িত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাতক্ষীরা নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। তিনি বলেন, শিশুশ্রম আইনত নিষিদ্ধ হলেও দরিদ্র পরিবারের শিশুরা অভাবের কারণে শিক্ষা হতে বঞ্চিত হচ্ছে। তারা দিনের বেলায় কাজ করে সন্ধ্যার পর এ বিদ্যালয়ে লেখাপড়ার সুযোগ গ্রহণ করতে পারে। এজন্য তাদের ভালভাবে লেখাপড়ার জন্য অভিভাবক ও শিক্ষকদেরকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করতে হবে। শুক্রবার সাতক্ষীরা নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সুধি সমাবেশ ও অতিথিদের সংবর্ধনা এবং বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সাতক্ষীরা নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র সদস্য আতাহার আলী খানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিখা রাণী মন্ডল। অনুষ্ঠান বিশেষ অতিথিবৃন্দ ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সাধারণ) মো. জাকির হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. আব্দুল হান্নান, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এসএম আব্দুল্লাহ আল মামুন, সভাপতি, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সভাপতি আবু আহম্মেদ, সাবেক সভাপতি, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব এড. আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব মো. আব্দূল বারী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল। সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সভাপতি আবু আহম্মেদ বলেন, বিশেষায়িত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাতক্ষীরা নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি ১৯৭০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়ে সাতক্ষীরা অঞ্চলে অনগ্রসর, ঝরেপড়া, পথশিশু, কর্মজীবীদের মাঝে শিক্ষার আলোক বর্তিকা পৌছে দিচ্ছে। এ প্রতিষ্ঠানটির প্রতি সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করা উচিত। এর অবকাঠামো উন্নয়নসহ জাতীয়করণ করা একান্ত প্রয়োজন। সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সাবেক সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ বলেন, সাতক্ষীরায় এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত না হলে দিনের আলোয় শিক্ষাবঞ্চিত শিশুরা শিক্ষার অধিকার হতে চরমভাবে বঞ্চিত হত। এ জন্য সার্বজনীন শিক্ষা বিস্তারের জন্য এ বিদ্যালকে সরকারিভাবে সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন। অনুষ্ঠান শেষে নবাগত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেনসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ বার্ষিক বনভোজনে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন ড. দিলীপ কুমার দেব।