তালায় মাসব্যাপী সেকেন্দার মেলার উদ্বোধন: কবির জীবন ও কর্ম প্রজন্মের তরুণদের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান


প্রকাশিত : মার্চ ১০, ২০১৮ ||

শহীদুল ইসলাম: ‘জনতার সংগ্রাম চলবেই, আমাদের সংগ্রাম চলবেই হতমানে অপমানে নয়, সুখ সম্মানে বাঁচবার অধিকার কাড়তে দাস্যের নির্মোক ছাড়তে অগণিত মানুষের প্রাণপণ যুদ্ধ চলবেই চলবেই, আমাদের সংগ্রাম চলবেই…।’ কবি, নাট্যকার, অনুবাদক, উপন্যাস রচয়িতা, গীতিকার ও আপাদমস্তক সাংবাদিক সিকান্দার আবু জাফর এভাবেই গণসংগীত রচনা করে বাংলার মানুষের মনে অধিকার আদায়ের সংগ্রামী মন্ত্রে বিপ্লবী সুর ছড়িয়ে ছিলেন। রক্তচোখের আগুন মেখে ঝলসে-যাওয়া/আমার বছরগুলো/আজকে যখন হাতের মুঠোয়/কণ্ঠনালীর খুনপিয়াসী ছুরি,/কাজ কি তবে আগলে রেখে/বুকের কাছে/কেউটে সাপের ঝাঁপি!/আমার হাতেই নিলাম আমার/নির্ভরতার চাবি;/তুমি আমার আকাশ থেকে সরাও তোমার ছায়া,/তুমি বাংলা ছাড়ো।… তুমি আমার বাতাস থেকে/মোছো তোমার ধুলো,/তুমি বাংলা ছাড়ো।…তুমি আমার জলস্থলের/মাদুর থেকে নামো,/তুমি বাংলা ছাড়ো। স্বাধীনতা বিরোধীদের বাংলা ছাড়ার আহ্বান জানিয়ে সিকান্দার আবু জাফর এভাবেই লিখেছেন কবিতা। সেই কাল জয়ী কবির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘সিকান্দার মেলা-২০১৮’।
কবির জন্মস্থান তালার তেঁতুলিয়ায় মাসব্যাপী এ মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় কবি সেকেন্দার আবু জাফরের পৈত্রিক ভিটা তেঁতুলিয়া হাশেমী বাড়ি সংলগ্ন মাঠে এ মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে নবাগত জেলা প্রশাসক ইফতেখার হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাবেক প্রতি মন্ত্রী সৈয়দ দিদার বখ্ত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অতিকুল হক, তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদ হোসেন, তালা থানা অফিসার ইনচার্জ হাসান হাফিজুর রহমান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেবুন্নেচ্ছা প্রমুখ।
এসময় বক্তারা সিকান্দার আবু জাফরের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে এদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে তার অবদানের কথা স্মরণ করেন। চির বিপ্লবী এ কথা সাহিত্যিকের লেখা সাহিত্যের প্রতিটি শাখাকে করেছে সমৃদ্ধ। মুক্তির আকাক্সক্ষাকে করেছে শাণিত। অন্যায় অসত্যের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর প্রেরণা খুঁজে পাওয়া যায় তার লেখনীতে। গণমানুষের অধিকার আদায়ে কবির লেখা বিপ্লবের অগ্নিমন্ত্রে দীক্ষা দেয়। সমকাল পত্রিকার মাধ্যমে তিনি অদিকার হারা নির্যাতীত নিপীড়িত মানুষের চিৎকার তুলে ধরেছেন সাহসীকতার সাথে। নাটক ‘সিরাজ উদ দৌলা’ রচনা করে তিনি মীর জাফরদের চরিত্র ফুটিয়ে তুলেছেন একই সাথে দেশ প্রেমের প্রবল আকর্ষণ সৃষ্টি করেছেন প্রজন্মের তরুণদের মাঝে। এভাবেই তার প্রতিটি লেখায় ফুটে উঠেছে দেশপ্রেম, স্বাধীনতা ও মুক্তিকামী মানুষের আকাক্সক্ষা। দেশ বরেণ্য বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র সিকান্দার আবু জাফরের স্মরণে অনুষ্ঠিত ‘সিকান্দার মেলা’ থেকে তার জীবন ও কর্ম প্রজন্মের তরুণদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।