তালায় সুপেয় পানির তীব্র সংকট: দু’টি গভীর নলকুপই মানুষের ভরসা


প্রকাশিত : এপ্রিল ১, ২০১৮ ||

তালা প্রতিনিধি: গ্রীষ্মের তাপদাহের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তালা উপজেলায় সুপেয় পানির তীব্র সঙ্কট দেখা দিয়েছে। কিন্তু পানির প্রয়োজন তো অন্য কিছুতে মেটানো সম্ভব নয়। তাই, যেভাবেই হোক সুপেয় পানি সংগ্রহ করতে মরিয়া গৃহস্থলিরা। প্রয়োজনের তাগিদেই  উপজেলা সদরের আশপাশের বাসিন্দারা পানযোগ্য এক কলসি পানির জন্য কয়েক কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে ছুটে আসছেন তালা সরকারি কলেজ ও উপজেলা চেয়ারম্যানের বাড়ি সংলগ্ন ডিপ টিউবওয়েলে। তারপরই মিলছে কাঙ্খিত পানি। আর যারা ক্লান্ত শরীরে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে না পারছেন তাদের নগদ টাকার বিনিময়ে কিনতে হচ্ছে খাবার পানি। এভাবে গ্রীষ্মে খাবার পানি সংগ্রহে রীতিমত যুদ্ধ করতে হচ্ছে তাদের।

তালা উপজেলার সর্বত্রই কৃষি কাজের জন্য অতিমাত্রায় সেচ পাম্প দিয়ে উত্তোলন করা হচ্ছে ভূগর্ভস্থ পানি। ফলে পানির লেয়ার নিচে নেমে যাচ্ছে। এ কারণে গ্রামের অধিকাংশ টিউবওয়েলেই পানি উঠছে না। প্রতিদিন কাকডাকা ভোর থেকে উপজেলার মহান্দী, খলিলনগর, নলতা, গোনালি, বারুইহাটিম শাহাপুর, খড়েরডাঙা, শিবপুর, গোপালপুর গ্রামের বাসিন্দারা কলসি, ড্রাম, বোতল নিয়ে সাইকেল, মটরসাইকেল ও ভ্যান যোগে ছুটছেন উপজেলা চেয়ারম্যানের বাসা ও সরকারি কলেজ অভিমুখে। সেখানে গিয়ে মিলছে পানি সংগ্রহ করতে যাওয়া মানুষের লম্বা লাইন। অনেক সময় ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করার পর মিলছে কাঙ্খিত পানি। এদিকে তালা হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় গড়ে ওঠা পানি কোম্পানীতেও ভিড় করছেন স্বচ্ছল পরিবারের লোকজন। কিন্তু সেখানেও চাহিদা অনুযায়ী পানি সরবরাহ করতে হিমসিম খেতে হচ্ছে কর্তৃপক্ষকে।