ঝিমিয়ে পড়েছে কপিলমুনির সলুয়া গোলাবাটী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষাকার্যক্রম


প্রকাশিত : April 9, 2018 ||

কপিলমুনি (খুলনা) প্রতিনিধি: কপিলমুনির পার্শ্ববর্তী সলুয়া গোলাবাটী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষাকার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়েছে। ৪ এপ্রিল এক ছাত্রের অবিভাবক বিষ্ণুরায় পাইকগাছা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক খুর্শিদা আক্তার মিনির বিরুদ্ধে কর্তব্য কর্মে অবহেলা ও বিদ্যালয় চলাকালীন ফোনালাপ করার অভিযোগ করেছেন।

অবিভাবকের লিখিত অভিযোগ জানা যায়, বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা খুর্শিদা আক্তার মিনি ক্লাস চলাকালীন ফোনালাপ নিয়ে ব্যস্ত থাকেন, ফলে কোমল মতি শিক্ষার্থীরা ক্লাস করা থেকে বঞ্চিত হয়। এছাড়া ঠিকমত ক্লাস করেন না।  নাইট গার্ড দিয়ে ক্লাস করানোর মতো গুরুতর অভিযোগও আনা হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অবিভাবক বলেন, ‘বিদ্যালয়টি ব্যাপক স্বেচ্ছাচারিতা আর অনিয়মের মধ্য দিয়ে চলছে। অধিকাংশ শিক্ষক ইচ্ছে মতো ক্লাসে আসেন, ইচ্ছে হলে ক্লাস নেন, না হলে নেন না। মিনি ম্যাডাম প্রায় ২৪বছর ধরে এখানে শিক্ষকতা করছেন, তাই উনি এক প্রকার ফ্রি স্টাইলে ইচ্ছে খুশি মতো বিদ্যালয়ে শিক্ষাকার্যক্রম চালান’।

এবিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষিকা খুর্শিদা আক্তার মিনি’র কাছে জানতে চাইলে তিনি ‘আমি কিছু জানি না’ বলেই ফোন কেটে দেন। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা গাজী সাইফুল ছুটিতে থাকায়। সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা নয়ন কুমার সাহা বলেন,‘অভিযোগ পেয়েছি, এ সপ্তাহে তদন্ত করবো’। নাইট গার্ড দিয়ে ক্লাস করানোর প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব’।