মিথ্যে সাক্ষী না দেয়ায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : জুন ৬, ২০১৮ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: তালা উপজেলার মাগুরা গ্রামের মৃত শেখ আব্দুল লতিফকে মুক্তিযোদ্ধা বানানোর জন্য মিথ্যে সাক্ষী না দেয়ায় তার ছেলেরা এক মুক্তিযোদ্ধা পারিবারের সদস্যদের উপর হামলা চালিয়ে মারপিট ও বাড়িঘর ভাংচুর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তালার মাগুরা গ্রামের মৃত মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুল মান্নানের ছেলে শেখ আব্দুল শাহিন পলাশ মঙ্গলবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার চাচা মৃত শেখ আব্দুল লতিফ মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না। কিন্তু আমার বাবা মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুল মান্নান জীবিত থাকা অবস্থায় আব্দুল লতিফ মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার পায়তারা শুরু করেন। ২০১০ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর আমার বাবা মারা যান। সম্প্রতি সারা দেশে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই শুরু হলে আমার চাচাত ভাই শেখ আব্দুল আলিম টুটুল, শেখ অব্দুস সেলিম ও শেখ বাবুল আক্তার তাদের পিতাকে মুক্তিযোদ্ধা বাননোর জন্য আমার বৃদ্ধা মা’কে সাক্ষী দিতে বলেন। কিন্তু আমার মা মিথ্যে সাক্ষী দিতে রাজি না হওয়ায় তারা আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং আমাদের পরিবারের সদস্যদের বিভিন্নভাবে হয়রানি করার ষড়যন্ত্র শুরু করে। এরই জের ধরে গত ২ জুন তারা আমার বাড়িতে হামলা করে বাড়ির পিছনের জমির কিছু অংশের গাছপালা কাটতে থাকে। এসময় বাধা দিতে গেলে উল্লেখিতরা আমার বৃদ্ধা মা, বোন জেসমিন সুলতানা, ভগ্নিপতি মাসুদ রানা ও তাদের দুই মেয়েসহ আমাকে বেধড়ক মারপিট করে। স্থানীয়রা এসে আহতদের উদ্ধার করে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। বর্তমানে তারা আমাদেরকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করাসহ বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি দিচ্ছে। ফলে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বর্তমানে আমি চরম নিরাপত্তহীনতায় ভুগছি।
তিনি টুটুল গংদের হয়রানি থেকে রক্ষা পেয়ে যাতে নিজ বাড়িতে শান্তিতে বসবাস করতে পারেন তার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।