পাইকগাছায় কাঁকড়া সম্পদ বর্তমান অবস্থা ও টেকসই উন্নয়ন শীর্ষক কর্মশালা


প্রকাশিত : জুন ২৪, ২০১৮ ||

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রাণালয়ের যুগ্ম-সচিব অসীম কুমার বালা বলেছেন, মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিশেষ অবদান রয়েছে। বর্তমান সরকারও মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছেন। সরকারের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের গবেষকরাও মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। যার ফলে মৎস্য উৎপাদন ও রপ্তানিতে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। বিদেশে বাংলাদেশের মৎস্য সম্পদের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। বিদেশে যে মৎস্য রপ্তানি হয় তার মধ্যে কাঁকড়ার মূল্যায়ন ও গুরুত্ব অনেক বেশি। তিনি কাঁকড়া ও কুচিয়ার সম্ভাবনাকে কাজে লাগানোর জন্য গুণগতমান বজায় রেখে সকলের প্রতি কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি শনিবার সকালে পাইকগাছার লোনাপানি কেন্দ্র অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের চলমান বাংলাদেশের নির্বাচিত এলাকায় কুচিয়া ও কাঁকড়া চাষ এবং গবেষণা প্রকল্পের আওতায় আয়োজিত ‘বাংলাদেশের কাঁকড়া সম্পদ: বর্তমান অবস্থা ও টেকসই উন্নয়ন’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহা পরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ। কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দেশের নির্বাচিত এলাকায় কুচিয়া ও কাঁকড়া চাষ এবং গবেষণা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. ডুরিন আখতার জাহান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, মৎস্য অধিদপ্তর খুলনার বিভাগীয় উপ-পরিচালক রণজিৎ কুমার পাল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ফকরুল হাসান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাগেরহাট চিংড়ি গবেষণা কেন্দ্রের মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. খান কামাল উদ্দীন আহম্মেদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উর্দ্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা দেবাশীষ মন্ডল।