গণমানুষের নেতা স. ম আলাউদ্দীনের খুনিদের ফাঁসির দাবিতে পাটকেলঘাটায় মানববন্ধন


প্রকাশিত : জুন ২৭, ২০১৮ ||

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি: গণমানুষের নেতা, সাবেক প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য, দৈনিক পত্রদূত সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ স. ম আলাউদ্দীন হত্যা মামলার দ্রুত বিচার এবং খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। প্রবল বৃষ্টি মাথায় নিয়ে হাজারো জনতা তাদের নেতার খুনিদের ফাঁসির দাবি জানান এ কর্মসূচিতে। অনেকেই কর্মসূচিতে যোগদানের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে বৃষ্টির মধ্যে আটকা পড়েন। মঙ্গলবার বিকেলে পাটকেলঘাটা পাঁচ রাস্তার মোড়স্থ শহীদ আলাউদ্দীন চত্তরে স. ম আলাউদ্দীন হত্যার দ্রুত বিচারের দাবি নিয়ে উপস্থিত হয় হাজারো জনতা। পাটকেলঘাটা আলাউদ্দীন স্মৃতি সংসদ আওয়ামী লীগ, কৃষকলীগ, জাসদ, জাতীয়পাটি, ওয়ার্কার্সপার্টির উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা থেকে খুনি সবুর, ঝড়–, মোহন, সাইফুল, রউফ, এসকেন, কালামসহ আসামীদের ফাঁসির দাবিতে স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে তোলে প্রতিবাদী জনতা। আলাউদ্দীন স্মৃতিসংসদের আহবায়ক তালা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ইখতিয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসুচিতে বক্তব্য রাখেন জেলা কৃষকলীগের সভাপতি বিশ্বজিৎ সাধু, সাবেক জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য বিশ্বাস জাহাঙ্গীর আলম, তালা উপজেলা জাসদের সভাপতি বিশ্বাস আবুল কাসেম, তালা উপজেলা ওলামা লীগের আহবায়ক শেখ আনছার আলী, তালা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সভাপতি লিটু, পাটকেলঘাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি শেখ জহুরুল হক, ওয়ার্কার্সপার্টির নেতা আদিত্যমল্লিক প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সরুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস আতিয়ার রহমান। এ সময় তালা ও পাটকেলঘাটা এলাকার হাজারো মানুষ উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মী ও সমর্থকরা।
দীর্ঘ ২২ বছরেও স. ম আলাউদ্দীন হত্যা মামলার বিচার সম্পন্ন না হওয়ায় বক্তরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, স. ম আলাউদ্দীনকে সাধারণ মানুষের হৃদয় থেকে মুছে ফেলা যাবে না। আলাউদ্দীনরা মরে না। ওরা চিরঞ্জীব। খুনিরা ভেসে যাবে। খুনিদের ফাঁসি দেখতে চায় দেশবাসি। আলাউদ্দীন আওয়ামী লীগের রাজনীতি করতেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের আদর্শের সৈনিক। সেই আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায়। সুতরাং আলাউদ্দীন হত্যার বিচার হতেই হবে। প্রয়োজনে আন্দোলনের মাধ্যমে দাবি আদায় করা হবে। বিচার না হওয়া পর্যন্ত জনতার লড়াই চলবেই, চলবে। জনপ্রিয় এই নেতার খুনিদের ধিক্কার জানান বক্তারা। খুনিদের প্রতি ঘৃণা ছুড়ে দিয়ে তাদেরকে সামাজিকভাবে বয়কটের আহ্বান বক্তারা। দেশের সরকার প্রধানকে উদ্দেশ্য করে বক্তরা আরো বলেন, আলাউদ্দীনের খুনিদের সাতক্ষীরার মাটিতে ঠাঁই নাই। বীর মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দীন হত্যার বিচার সাতক্ষীরার মাটিতে হতেই হবে। তার জন্য যা প্রয়োজন তা সাতক্ষীরাবাসিকে নিয়ে করা হবে। বক্তারা প্রয়াত নেতার স্মৃতিচারণ করে আরও বলেন, স. ম আলাউদ্দীন ছিলেন গনমানুষের নেতা। সেই নেতার আদর্শকে ধারণ করে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। তিনি সব সময় সাধারণ মানুষের জন্য রাজনীতি করতেন। বক্তারা স. ম আলাউদ্দীনের খুনিদের ফাঁসির দাবি জানান।