ফুটবলারদের সবচেয়ে দামি দশ দলবদল


প্রকাশিত : জুলাই ১৩, ২০১৮ ||

স্পোর্টস ডেস্ক: রেয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে ইউভেন্টুসে গেলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো৷ এই ট্রান্সফারের জন্য ক্লাবটিকে গুনতে হচ্ছে ১১২ মিলিয়ন ইউরো৷ চলুন হালনাগাদ তালিকাটি দেখে নেয়া যাক৷
প্রথম স্থান: নেইমার

নেইমারের জন্য অনেকটা মজা করে রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফি চেয়েছিল এফসি বার্সেলোনা৷ ক্লাবটি মনে করেছিল, এত টাকা একজন খেলোয়াড়ের পেছনে কেউ খরচ করবে না৷ কিন্তু তাদের ধারণা ভুল প্রমাণ করে দিয়ে কাতারের ব্যবসায়ী নাসের আল-খালিফি’র পাঁরি স্যঁ জার্মেই ক্লাব ২০১৭ সালে ব্রাজিলের এই ফুটবল তারকাকে দলে ভেড়ায়৷ খেলোয়াড় বদলের এই রেকর্ড শীঘ্রই কেউ ভাঙতে পারবে বলে মনে হয় না৷

 

দ্বিতীয় স্থান: কিলিয়ান এমবাপে

বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবল মেধা হিসেবে বিবেচনা করা হয় কিলিয়ান এমবাপেকে৷ পাঁরি স্যঁ জার্মেই তাঁকে দলে পেতে ১৪৫ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফি এবং ২০১৭/২০১৮ মৌসুমের জন্য ‘রেন্টাল ফি’ হিসেবে ৩৫ মিলিয়ন ইউরো গুনেছে৷ ১৯ বছর বয়সি এই তারকাকে ভবিষ্যৎ মেসি বা রোনাল্ডো হিসেবে বিবেচনা করেন অনেকে৷

তৃতীয় স্থান: ফেলিপে কুটিনিয়ো

ব্রাজিলের মিডফিল্ডার ফেলিপে কুটিনিয়োর ২০১৭ সালে এফসি লিভারপুল থেকে এফসি বার্সেলোনায় যাওয়ার ট্রান্সফার ফি ছিল ১২০ মিলিয়ন ইউরো৷ পাশাপাশি তাঁর সাফল্যের ভিত্তিতে বোনাস পেমেন্টও ছিল ৪০ মিলিয়ন পর্যন্ত৷ রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্রাজিলের অন্যতম সফল খেলোয়াড় ছিলেন তিনি৷

চতুর্থ স্থান: ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো

এটা সত্যি যে, সবচেয়ে ব্যয়বহুল ট্রান্সফারের তালিকার শীর্ষে নেই ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো৷ তবে এই তালিকায় দু’বার প্রবেশ করেছেন তিনি৷ ২০০৯ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে তাঁকে পেতে ৯৪ মিলিয়ন ইউরো গুনেছিল রেয়াল মাদ্রিদ৷ আর সম্প্রতি ১০০ মিলিয়ন ইউরোর মতো খরচ করে স্পেনের রাজধানী থেকে তাঁকে নিয়ে গেছে ইউভেন্টুস৷

পঞ্চম স্থান: উসমান ডেম্বেলে

ট্রান্সফার ফি’র বিবেচনায় পগবার মতো হলেও উসমান ডেম্বেলেকে ডর্টমুন্ড থেকে নিজেদের দলে ভেড়াতে ২০১৭ সালে বার্সেলোনা ‘অ্যাড-অনস’ হিসেবে গুনেছে বাড়তি অর্থ৷ অর্থাৎ, ট্রান্সফার ফি ১০৫ মিলিয়ন ইউরো৷ আর ‘অ্যাড-অনস’ যা হতে পারে সর্বোচ্চ ৪২ মিলিয়ন ইউরো৷ ফলে দুই বিবেচনায় সেসময় এই ট্রান্সফার ছিল এক রেকর্ড৷

ষষ্ঠ স্থান: পল পগবা

গ্যারেথ বেলের রেকর্ড ভেঙেছেন পল পগবা, ২০১৬ সালে৷ ইউভেন্টুস থেকে এই ফরাসিকে দলে ভেড়াতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ট্রান্সফার ফি হিসেবে গুনেছে ১০৫ মিলিয়ন ইউরো৷

সপ্তম স্থান: গ্যারেথ বেল

রেয়াল মাদ্রিদ ২০১৩ সালে টটেনহাম হটস্পার থেকে গ্যারেথ বেলকে দলে ভেড়াতে ট্রান্সফার ফি হিসেবে খরচ করে ১০১ মিলিয়ন ইউরো৷ এটা ছিল সেসময় সবচেয়ে বড় ট্রান্সফার৷

অস্টম স্থান: গঞ্জালো হিগুয়েইন

ভক্তদের তীব্র প্রতিবাদ সত্ত্বেও ২০১৬ সালে এসএসসি নাপোলি থেকে নব্বই মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফি’র বিনিময়ে ইউভেন্টুসে বদলি হন গঞ্জালো হিগুয়েইন৷ সেই সময় এই ট্রান্সফার ফি ছিল ইটালির ‘সিরি আ’ লিগের এক রেকর্ড৷ অবশ্য এত পয়সা খরচ করে লাভই হয়েছে ইউভেন্টুসের৷ লিগের ৩৫ খেলায় ৩৬ গোল করেছেন এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার৷

নবম স্থান: রোমেলো লুকাকু

নিজের অবস্থানে এক অপ্রতিরোধ্য খেলোয়াড় রোমেলো লুকাকু৷ বল নিয়ে যখন তিনি ছুটতে শুরু করেন, তখন তাঁকে আটকানো প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগের জন্য অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়ে৷ ১ দশমিক ৯১ মিটার লম্বা এই বেলজিয়ান স্ট্রাইকার প্রিমিয়ার লিগ এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অন্যতম গোলদাতা৷ গতবছর ৮৪ দশমিক সাত মিলিয়ন ইউরো দিয়ে এভারটন থেকে তাঁকে দলে টেনে নেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড৷

 

দশম স্থান: ফ্যঁর জ্যু ফন ডেইক

কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের আশা পূর্ণ হয়েছে৷ ডাচ রক্ষণভাগের ১ দশমিক ৯৩ মিটার লম্বা খেলোয়াড় ফ্যঁর জ্যু ফন ডেইককে চলতি বছরের শুরুতে এফসি সাউদাম্পটন ছেড়ে এফসি লিভারপুলে যোগ দিয়েছেন৷ তাঁর ট্রান্সফার ফি ছিল ৮৪ দশমিক পাঁচ মিলিয়ন ইউরো৷ ফুটবল ইতিহাসের সবচয়ে দামি ডিফেন্ডার তিনি৷