বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে এ দেশের মাটি থেকে তার নাম মুছে ফেলা যাবে না: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী


প্রকাশিত : আগস্ট ১৮, ২০১৮ ||

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি: মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি বলেছেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করে স্বাধীনতা বিরোধী চক্র এ দেশের মাটি থেকে তার নাম মুছে ফেলতে চেয়েছিল। কিন্ত সৃষ্টি কর্তার অসীম কৃপায় তা সম্ভব হয়নি। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে এদশের মানুষরা আবারও ক্ষমতায় আসিন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করে দেশেকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে চলেছে। স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি সরকারকে বিভ্রান্ত ও উন্নয়নের গতিকে রোধ করতে নানা ধরনের চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে। এব্যাপারে বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে সজাগ থাকতে হবে। স্বাধীনতা সংগ্রামে ছাত্ররা দেশের জন্য আন্দোলন করেছে, তেমনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সরকারের বিরুদ্ধে দেশের ঘাপটি মেরে বসে থাকা চক্রান্তকারীদের সকল আন্দোলন প্রতিহত করতে আহবান জানান তিনি।
শুক্রবার বিকেলে ডুমুুরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বাষিকীতে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় এ কথা বলেন। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খান আবুল বাশারের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক শেখ মাসুদ রানা’র পরিচালনায় প্রধান বক্তৃতার বক্তব্য দেন জেলা ছাত্রলীগের সাধার সম্পাদক ইমরান হোসেন ইমু। বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামলীগ নেতা এড. রবীন্দ্রনাথ মন্ডল, অধ্যক্ষ এবিএম শফিকুল ইসলাম। সভায় আরো বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ নেতা শাহানেওয়াজ হোসেন জোয়দ্দার, জেলা পরিষদ সদস্য শোভা রানী হালদার ও সরদার আবুল সালেহ, সরদার আবু সাঈদ, শেখ নাজিবুর রহমান, খান আবু বক্বার, জুল ফিকার আলী জুলু, এড. প্রতাপ রায়, জিএম ফারুক হোসেন, মোল্যা জাহিদুল ইসলাম, কাজী আলমগীর হোসেন, হাসনা হেনা, তহমিনা বেগম, যুবলীগ আহবায়ক প্রভাষক গোবিন্দ ঘোষ, এড. আশরাফুল আলম ,শেখ ইকবাল হোসেন, মেহেদী হাসান বিপ্লব, ইমরান হোসেন, কাজী মেহেদী হাসান রাজা, সম কবিরুল ইসলাম জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সোহেল আহম্মেদ লিটন, কলেজ ছাত্রলীগের সম্পাদক রাসেল সরদার প্রমুখ। পরে মন্ত্রী উপজেলার গুটুদিয়া এলাকায় সার্বজনিন মঠ মন্দির পরিদর্শন করেন। সাম্প্রতি মন্দিরের পুরাহিতসহ ৩জনকে অজ্ঞান করায় ঘটনায় আহতদের খোজখবর নেন।