কালিগঞ্জে কয়রা থানায় কর্মরত পুলিশ সদস্যের ইন্তেকাল, শোক জ্ঞাপন


প্রকাশিত : August 29, 2018 ||

বিশেষ প্রতিনিধি: কালিগঞ্জে লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে আকরামুল ইসলাম সুমন (২৭) নামে এক পুলিশ সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন। তিনি উপজেলার ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের রতেœশ^রপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের ছেলে।
নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৮ আট বছর পূর্বে আকরামুল ইসলাম পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন। খুলনার কয়রা থানায় কর্মরত অবস্থায় তিনি লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (২৭ আগস্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে পিতা-মাতা, স্ত্রী ও তিন বছরের শিশুকণ্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে আকরামুল ইসলামের মৃতদেহ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসার পর সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। বাদ জোহর জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে মরহুমের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কালিগঞ্জ ইউনিটের সাবেক কমান্ডার আব্দুল হাকিম, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কালিগঞ্জ ইউনিটের সভাপতি ও কুশুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মেহেদী হাসান সুমন, সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক এসএম গোলাম ফারুক, ধলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান গাজী শওকাত হোসেন, গোবিন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জিএম ফজের আলীসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ জানাজায় অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও খুলনা পুলিশ টেলিকম অ্যান্ড ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্টের পক্ষে ওসি (বেতার রেঞ্জ) আসাদুজ্জামান শাহীনের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যবৃন্দ মরহুমের দাফনে অংশগ্রহণ করেন। এসময় তিনি সরকারি কল্যাণ তহবিল থেকে নিহত পুলিশ সদস্যের পরিবারের সদস্যদের কাছে নগদ ২০ হাজার টাকা এবং কয়রা থানার ওসি’র পক্ষ থেকে ৫ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।
এদিকে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আকরামুল ইসলাম সুমনের মৃত্যুতে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এবং মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কালিগঞ্জ ইউনিটের পক্ষ থেকে গভীর শোক জ্ঞাপন এবং তার রূহের মাগফিরাত কামনার পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানানো হয়েছে।