ইলিশ এখন রূপ কথার গল্প!


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: ইলিশ বিক্রিতে মাইকিং করেও ক্রেতার দেখা মিলছে না। দাম শুনে হতাশ ক্রেতা। মাইকিং শুনে আগ্রহ নিয়ে বাজারে ইলিশ কিনতে এসে দাম জানার পর অনেকেই খালি প্যাকেট হাতে ফিরে যাচ্ছেন। বাজার ঘুরে দেখা গেছে, কয়েক ঝুড়ি ইলিশ নিয়ে ১০/১২ জন বিক্রেতা বসে আছেন। ক্রেতার সংখ্যা সর্ব সাকুল্যে ২/৩ জন। সকাল থেকে ক্রেতারা ভ্রাম্যমাণ মাইকে শুনেছেন, ‘বরিশাল থেকে বিপুল পরিমাণ ইলিশ আমদানি হয়েছে সাতক্ষীরা সুলতানপুর মাছ বাজারে। সারা দিন ইলিশ বিক্রি হবে। সুলতানপুর বড়বাজারের ব্রিজের মাথায় রাতেও পাওয়া যাবে ইলিশ।’ এমন প্রচার করা হয় জেলা শহর ও শহরের বাইরে বিভিন্ন গ্রামে। প্রচার মাইকের খবর শুনে ইলিশ মাছ কিনতে আসেন অনেকেই। এসেই দেখেন বাজারে কয়েক ঝুড়ি ইলিশ মাছ উঠেছে ঠিকই কিন্তু দাম বড় আক্রা। ৭০০-৭৫০ গ্রাম ওজনের ইলিশের দাম কেজিপ্রতি ৮০০ টাকা। ৯০০ গ্রাম-এককেজি ওজনের ইলিশের দাম কেজিপ্রতি ১০০০-১১০০ টাকা।
ইলিশ বিক্রেতারা জানান, মৌসুমের শুরুতেই এবছর ইলিশ দেখা যায়নি। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর সাগরে ইলিশ ধরা পড়ছে। বেশি দামে কিনে আনতে হচ্ছে। যে কারণে বেশি বিক্রি করতে হচ্ছে। তারা আরো জানান, এ বছর নাবিতে ইলিশ ধরা পড়ছে। ফলে দাম বেশি। তাছাড়া চাহিদার তুলনায় সরবরাহও কম।
এদিকে ক্রেতারা জানান, যে মাছের দাম অন্যান্য বছর ৩০০-৪০০ টাকা। এবছর সে মাছের দাম ৮০০-৯০০ টকা। ইলিশের দাম এ বছর দ্বিগুণেরও বেশি। এতে করে নি¤œবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের পক্ষে ইলিশ খাওয়া স্বপ্ন দেখার মত। পরিবারের সন্তানদের কাছে ইলিশ এখন রূপ কথার গল্প। সাধ থাকলেও সাধ্যে কুলাচ্ছে না গরীব পরিবারের সদস্যদের।