আশাশুনিতে বজ্রপাতে স্কুল ছাত্রীসহ নিহত তিন এবং আহত দুই ছাত্রী


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮ ||

আশাশুনি ব্যুরো: আশাশুনিতে বজ্রপাতে স্কুল ছাত্রীসহ নিহত তিন এবং দুই ছাত্রী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বিকাল ৪টার দিকে কালীবাড়ী-চাম্পাফুল দীঘির পাড় এলাকায়। প্রতক্ষ্যদর্শী সূত্রে জানা গেছে, আশাশুনি-কালীগঞ্জ উপজেলার সিমান্তবর্তী চাম্পাফুল আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র বিদ্যাপিঠের ৪ ছাত্রী প্রাক্তন শিক্ষক জগন্নাথ মন্ডলের বাড়ী থেকে প্রাইভেট পড়ে নিজ নিজ বাড়ী ফিরছিল। এরই মধ্যে মাঝারি আকারের বৃষ্টি ও বজ্রপাত শুরু হলে তারা পার্শ্ববর্তী চাম্পাফুল দীঘি সংলগ্ন জনৈক রঞ্জন পালের বাঁশবাগানে গাছের নিচে আশ্রয় নেয়। এ সময় হঠাৎ বজ্রপাত ঘটলে চাম্পাফুল খাঁ বাড়ির বিল্লাল খাঁর কন্যা বিলকিস (৮ম শ্রেণি) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। তাদের সহপাঠী ওই গ্রামের আকবর শেখের কন্যা ময়না (৮ম শ্রেণি), তেঁতুলিয়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের কন্যা সাথী (৮ম শ্রেণি) ও বালাপোতা গ্রামের আব্দুর রহিম শেখের কন্যা রুবিনা (৯ম শ্রেণি) গুরুতর আহত হয়। পার্শ্ববর্তী লোকজন তাদের উদ্ধার করে আশাশুনি হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার বিলকিসকে মৃত্যু ঘোষণা করেন এবং আহতদের অবস্থা অবনতি হলে দ্রুত সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে প্রেরন করে। সাতক্ষীরা নেয়ার পথে আহত ময়নাও মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে। অপরদিকে, একই সময় উপজেলার খাজরা ইউনিয়নের কাপসন্ডায় মৎস্য ঘেরে পৃথক বজ্রপাতে আবু বক্স গাজীর পুত্র এক প্রতিবন্ধী সন্তানের পিতা তাছেল গাজী (৩০) নিহত হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আর নতুন কোন নিহতের খবর পাওয়া যায়নি।