উপজেলা ভূমি অফিসে ৬মাস ধরে এসিল্যান্ড শূণ্য: জনদুর্ভোগ চরমে!


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৮ ||

মনিরুল ইসলাম মনি: প্রায় ৬ মাস ধরে সদর উপজেলা ভূমি অফিসে সহকারী কমিশনার ভূমি (এসিল্যান্ড) না থাকায় উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের সাধারণ জমির মালিকরা জমির খাজনা, মিউটেশন, বন্দবস্ত, ইজারা, খাসজমি ডিসিআর পেতে দিনের পর দিন হয়রানী ও দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। উপজেলা ভূমি অফিস সুত্রে জানা গেছে। গত ২৯-৩-২০১৮ তারিখে সহকারী কমিশনার ভূমি (এসিল্যান্ড) সাদিয়া আফরিন বদলী হয়ে অনত্র চলে যান। এরপর থেকে এ দপ্তরে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তহমিনা খাতুন। উপজেলা ভূমি অফিসের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, জমির চেক কাটা, খাজনা আদায়, খাস জমির ডিসিআর ও মিউটেশন করতে হয় মাসে প্রায় ৩ শতাধিক। দীর্ঘদিন এসিল্যান্ড না থাকায় আমরা পড়েছি নানা দুর্ভোগের মধ্যে। ঠিক সময়মত জমির মালিকদের কাছে কেচ মিটিয়ে সমাধান দিতে পারছিনা। অফিসের দপ্তরাী কাজ ও একটু বিঘিœত হচ্ছে। সেই সাথে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের জমির মালিকরা অফিসে এসে কোন সমাধান না পেয়ে তারা দুর্ভোগের শিকার হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে হয়রানী ও দুর্ভোগের শিকার সাধারণ জমির মালিকরা বিষয়টি জেলা প্রশাসক মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।