পাইকগাছায় ১৪৮টি ম-পে শারদীয়া দুর্গাপূজা উদযাপিত হবে


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৮ ||

প্রকাশ ঘোষ বিধান, পাইকগাছা (খুলনা): এ বছর পাইকগাছা উপজেলায় ১৪৮টি ম-পে শারদীয়া দূর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দুর্গাপূজা উপলক্ষে পাইকগাছার পূজা ম-পগুলিতে ব্যাপক প্রস্ততি চলছে। মন্দিরগুলিতে প্রতিমা তৈরীর কারিগররা দিনরাত কাজ করছে। প্রতিমা তৈরীর মাটির কাজ প্রায় শেষ হয়েছে, কোথাও কোথাও রঙের কাজ চলছে। হিন্দু ধর্মালম্বীদের মধ্যে শারদীয় উৎসবের আগমনী বার্তা বইতে শুরু করেছে।
সূত্রে জানা গেছে, এবছর উপজেলায় ১৪৮টি মন্দির ও ম-পে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। তার জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে। উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়নে ১৪৮টি মন্দির ও ম-পে প্রতিমা তৈরীর কাজ চলছে। এর মধ্যে পৌরসভা ৭টি, হরিঢালী ২০টি, কপিলমুনি ১৯টি, লতা ১৩টি, দেলুটি ১৩টি, সোলাদানা ১০টি, লস্কর ১৭টি, গদাইপুর ৫টি, রাড়–লী ২০টি, চাঁদখালী ১২টি ও গড়াইখালী ইউনিয়নে ১২টি পূজা ম-পে পূজার প্রস্তুতি চলছে। ১৪ অক্টোবর পঞ্চমীর মধ্যদিয়ে দূর্গাদেবীর বোধন অনুষ্ঠনের মধ্যদিয়ে পূজা শুরু হবে। ১৯ অক্টোবর শুক্রবার বিজয়াদশমী পূজার মধ্যদিয়ে শারদীয়া দূর্গাপুজা শেষ হবে। এ ব্যাপারে পাইকগাছা উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমীরণ কুমার সাধু জানান, পূজা মন্দির কমিটির সভাপতি ও সম্পাদকদের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে। তাছাড়া সকল পূজা মন্দিরে সভাপতি ও সম্পাদক নিয়ে মতবিনিময় সভার প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। শারদীয়া দুর্গা উৎসব সু-শৃংখল ও আনন্দঘন পরিবেশে পূজা উদযাপনের জন্য প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিশ্ব জননী পূজায় বাঙালি হিন্দুর হৃদয়কে প্রসারিত করে। সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষ ও সকল দেশের মানুষকে আপন করে নিতে শিখিয়ে উৎসবকে সাব্বজনীন উৎসবে পরিণত করে।