বুড়িগোয়ালিনীতে অচাষকৃত উদ্ভিদের মেলা


প্রকাশিত : September 26, 2018 ||

মুন্সীগঞ্জ (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: শ্যামনগরের বুড়িগোয়ালিনীতে কোস্টাল ইডুকেশন এন্ড ডাইভার্সিটি ইমপ্রুভমেন্ট অর্গানাইজেশন (সিডিও) ও ডিয়ার্স বাংলাদেশ এর আয়োজনে বারসিকের সহযোগিতায় মাধ্যমিক স্কুল পর্যায়ে অচাষকৃত উদ্ভিদের উপকারিতা ও ব্যবহার নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টিতে ‘অচাষকৃত উদ্ভিদের মেলা’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার বেলা ১২টায় বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের কলবাড়ী নেকজানিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মিলনায়তনে উক্ত অনুষ্ঠানে অত্র বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক নিমাই চন্দ্র মন্ডল এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কোস্টাল এডুকেশন এন্ড ডাইভার্সিটি ইমপ্রুভমেন্ট অর্গানাইজেশনের নির্বাহী পরিচালক, শ্যামনগর উপজেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি গাজী আল ইমরান।
সিডিও এর হেড অফ এ্যাউন্টস গাজী আব্দুল আলিম ও দৈনিক সুপ্রভাত সাতক্ষীরার বুড়িগোয়ালিনী প্রতিনিধি সম ওসমান গনী সোহাগের যৌথ সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে অচাষকৃত উদ্ভিদের গুণাগুণ ও ব্যবহার সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের মাঝে মূল্যবান দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা করেন বেসরকারি গবেষণা সংগঠন বারসিক এর প্রোগ্রাম অফিসার রামকৃষ্ণ জোয়াদ্দার।
এর আগে ৭ম ও ৯ম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে অচাষকৃত কৃৃৃষি উদ্ভিদের গুণাগুণ সম্পর্কে ১০ মার্কের লিখিত পরীক্ষা হয়। তন্মধ্যে অচাষকৃত উদ্ভিদের গুণাগুণ ও ব্যবহার সম্পর্কে লিখে শিক্ষকদের বিচারে ১ম স্থান অধিকার করে ৭ম শ্রেণির জয়ন্ত কুমার মন্ডল, ২য় স্থান অধিকার করে ৭ম শ্রেণির মহিদুজ্জামান, ৩য় স্থান অধিকার করে ৯ম শ্রেণির কাঞ্চনা কয়াল। এছাড়া আরও ২০ জনকে সান্ত¦না পুরস্কার দেওয়া হয়।
৭ম শ্রেণির ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার তার অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, ‘মেলার মাধ্যমে আমি যেসব উদ্ভিদ সম্পর্কে জানি না, সেগুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছি। মেলায় উদ্ভিদের লিখিত গুণাগুণ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার জন্য তিনদিন আগে থেকে আমার মা-বাবা, দাদা-দাদী ও প্রতিবেশিদের নিকট থেকে অচাষকৃত খাদ্য ও ঔষধি উদ্ভিদগুলো সম্পর্কে জেনেছি। আমি এই মেলায় অংশগ্রহণ করে অনেক উপকৃত হয়েছি।’
অত্র বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক গোপাল কুমার মাঝী পুরস্কার বিতরণী পর্বে সিডিওর এই ভিন্নধর্মী উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেন, ‘আমার স্কুলের শিক্ষার্থীরা ৬৬টি অচাষকৃত খাদ্য ও ঔষধি উদ্ভিদ সম্পর্কে জানে, আমি নিজেও এতগুলোর নাম জানি না এটি জেনে আমার খুব ভাল লাগছে।’ তিনি সকল অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদেরকে এসব উদ্ভিদ ও শাকসব্জিকে নিজেদের প্রয়োজনে সংরক্ষণ, ব্যবহার ও প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখার পরামর্শ দেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক এমএম আব্দুল্লাহ আল মামুন, আবু ইসহাক, ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, এসএম সাহেব আলী, সাংবাদিক জাহাঙ্গীর হোসেন, জিএম আমিনুর রহমান, রুবেল, সজল, হেলাল, আশরাফুল, সুজন, মোস্তাফিজুর, আব্দুর রহিম, হাবিবুর, আব্দুল কাদের প্রমুখ।