মরা ও পঁচা কাঁকড়ার দুর্গন্ধে টিকে থাকা দায়!


প্রকাশিত : অক্টোবর ২, ২০১৮ ||

আব্দুল হালিম, বুড়িগোয়ালিনী (শ্যামনগর): জেলার শ্যামনগর উপজেলার সুন্দরবনের কোল ঘেঁষে অবস্থিত ৯নং বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়ন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ডিজিটাল ইউনিয়ন এটি। এখানকার বেশিরভাগ মানুষ চিংড়ি চাষের উপর নির্ভরশীল। কিন্তু বর্তমানে চিংড়ির মহামারি ভাইরাসের কারণে চিংড়ি চাষীরা সর্বস্ব খোয়াতে বসেছেন। চিংড়িতে লোকসান হওয়ায় মানুষ বাধ্য হয়ে কাঁকড়া চাষের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। ছোট বড় সব মিলিয়ে বর্তমানে ২০ থেকে ২৫টি সফটসেল কাকঁড়ার হ্যাচারি আছে বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নে। তবে কিছু কিছু হ্যাচারীর মরা কাকঁড়া ঘেরের রাস্তায় স্তুপ করে রাখায় দুর্গন্ধে টিকে থাকা দায় হয়ে পড়েছে। এছাড়া ঝাঁপি রাখার ফলে পরিবেশের ভীষণ ক্ষতি হচ্ছে। বুড়িগোয়ালিনী মাসুদের মোড় হতে পোড়াকাটলা গামী রাস্তার পূর্বপাশে দেবদাসের হ্যাচারীর সামনে এমন দৃশ্য দেখা যায়। দেবদাসের হ্যাচারীর মরা কাঁকড়া ভামিয়া মোড়ে শান্তি রামের বাড়ির উত্তর পাশে রাখে। এই রোড দিয়ে ভামিয়া পোড়াকাটলার দূর্গাবাটীর সর্বস্তরের মানুষ চলাচল করে। পঁচা কাঁকড়ার দুর্গন্ধে বর্তমানে মানুষের খুবই দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এই দুর্গন্ধে বিভিন্ন রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিচ্ছে। এলাকবাসি মরা ও পঁচা কাকঁড়ার দুর্গন্ধ বাঁচতে চায়। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকাবাসি।