কালিগঞ্জের যুবলীগ নেতা ও ইউপি সদস্যদের নামে অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : অক্টোবর ৮, ২০১৮ ||

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: কালিগঞ্জের রতনপুরে শিশুবলাৎকারকারী কর্তৃক স্থানীয় যুবলীগ নেতা ও ইউপি সদস্যদের নামে অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে করেন, কালিগঞ্জের রতনপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও ইউপি সদস্য সেলিম আহমেদ এবং রতনপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাত হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সেলিম আহমেদ বলেন, গত ৩০ সেপ্টেম্বর কালিগঞ্জের রতনপুর ইউপির ৪নং ওয়ার্ড সদস্য মাসুম বিলাহ সুজনের বিরুদ্ধে পীরগাজন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে পত্রপত্রিকায় একটি সংবাদ পরিবেশিত হয়। ওই বলাৎকারের সাথে সুজনের সরাসরি সম্পৃকতার অভিযোগের সকল প্রমান সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষের হাতে ইতোমধ্যে এসে পৌছেছে। সুজন মেম্বর এই প্রথমবারই না ইতোপূর্বে একাধিকবার শিশু বলাৎকারের মত জঘণ্য কাজ করলেও প্রভাবখাটিয়ে পার পেয়ে যান। এছাড়া স্থানীয় পীরগাজন দীঘিরপাড় জামে মসজিদের ৩৩ শতক ও দক্ষিন মলেঙ্গা মসজিদের সাড়ে ১৬শতক জমি প্রভাবখাটিয়ে ভোগদখল করছে। অথচ ওই সম্পত্তি আব্দুল মজিদ ২০ বছর নিকণ্ঠকভাবে ভোগদখলের পর তিনি স্বেচ্ছায় ওই মসজিদের নামে দান করেন। ওই সুজন এতই নিকৃষ্ট যে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে মসজিদের জমিও দখল করে রেখেছে। তাছাড়া এলাকার শিক্ষিক-বেকার যুবক-যুবতীদের চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আত্মসাথ করেছে। সে জামায়াতের সাথে সম্পৃক্ত। তার নামে কালিগঞ্জ থানায় দুটি নাশকতা মামলাও রয়েছে। যার একটি মামলা নং- ৮৬/১২ জিআর, (কালি:)। এসব বিষয়ে এলাকার মানুষ প্রতিবাদ করতে গেলে তাদের মিথ্যা মামলার ভয়দেখিয়ে দমিয়ে রাখে। সম্প্রতি কাটুনিয়া গ্রামের আব্দুলাহর পুত্র তরিকুল কে বলাৎকার করলে কালিগঞ্জ থানা এবং সাংবাদিকদের কাছে ন্যায় বিচারের স্বার্থে অভিযোগ করেন। অভিযোগের পর ওই জঘন্য ঘটনা থেকে বাঁচতে সুজন ভিকটিমের পরিবারের সদস্যদের নাশকতা মামলায় ফাঁসিয়ে হয়রানিসহ বিভিন্ন হুমকি প্রদর্শন করছে। সে নিজেকে রক্ষা করতে ৩ অক্টোবর’১৮ তারিখে আমাদের কে মাদকব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন বিতর্কিত মন্তব্য করে একটি সংবাদ সম্মেলন করে। আমি এলাকার মানুষের ভালোবাসায় প্রথমবার ইউপি সদস্যপদে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছি এবং সাজ্জাত হোসেন দীর্ঘদিন ধরে রতনপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। শুধু মাত্র ওই কথিত যুবলীগ নেতা পরিচয়দানকারী সুজনের পক্ষে অবস্থান না নেওয়ায় সে আমাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সুরত আলি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হওয়ার সুবাধে সে যখন তখন ওই বিদ্যালয়ে ঢুকে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সাথে খারাপ আচারণ করে। এবিষয়ে প্রতিবাদ করলে শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয় থেকে বের করে দেওয়া এবং শিক্ষকদের বিভিন্নভাবে লাঞ্চিতের ঘটনা তার নৈত্ত নৈমিত্তিক ব্যাপার। এব্যাপারে আমরা ওই লম্পট, প্রতারক সুজন কর্তৃক মিথ্যা অপপ্রচারের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং ওই লম্পট সুজনের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।