আমি বিনা ভোটের এমপি হতে চাইনি: গোলাম রেজা


প্রকাশিত : নভেম্বর ৯, ২০১৮ ||

পত্রদূত ডেস্ক: আমি বিনা ভোটের এমপি হতে চাইনি। তাই ২০১৪ সালের নির্বাচনে অংশ নেইনি। এবার বিকল্পধারার সাথে আরও সাতটি দল নিয়ে যে জোট গঠন করেছি তাদের নেতৃত্বে আমরা ভোটে অংশ নিব। আজ মানুষকে শান্তিতে থাকতে দেয়া হয় না। বাড়িতে থাকতে দেয়া হয় না। ঘরে ঘুমাতে পারে না। কেন এত ভয়! ভোটে আসেন। ভোট গণতান্ত্রিক অধিকার। পারলে ভোটে আসেন। আপনাদের আর অত্যাচার নির্যাতন করার সুযোগ দেয়া হবে না।
বৃহস্পতিবার বেলা তিনটায় বিকল্পধারা শ্যামনগর উপজেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত জনসভাবেশে এসব কথা বলে জাপা (এ) দলীয় সাবেক এমপি এইচএম গোলাম রেজা। বর্তমানে বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য এ নেতা আরও বলেন, সবকিছু ঠিকঠাক থাকা সত্ত্বেও বি. চৌধুরী, আব্দুল মান্নান, মাহি বি. চৌধুরীসহ বিকল্প ধারা এবং যুক্তফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতাদের আজকের সমাবেশে আসতে দেয়া হয়নি ষড়যন্ত্র করে। সরকার দলীয় স্থানীয় এমপিকে নির্দেশ করে তিনি আরও বলেন, আগেও তাকে এলাকায় আসতে বাঁধা দেয়া হয়েছে। তবে এবার সব ষড়যন্ত্রের জাল ছেদ করে তিনি নির্বাচনী প্রচারণা চালাবেন এবং বিকল্পধারা ও যুক্তফ্রন্ট এর কেন্দ্রীয় নেতারা প্রচারণায় অংশগ্রহণ করবেন বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ্য, সমাবেশে এইচএম গোলাম রেজার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখার কথা ছিল বিকল্পধারা এবং যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপ্রতি একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে বিকল্পধারা মহাসচিব মেজর অব: আব্দুল মান্নান, মাহি বি. চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রী গোলাম সরোয়ার মিলন, নাজিম-উদ্দীন আল আযাদ, শমসের মোবিন চৌধুরী ও শেখ মো. আসাদুজ্জামানের বক্তব্য রাখার কথা ছিল। গত কয়েক দিন ধরে উল্লেখিত নেতাদের উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করে গোটা সংসদীয় এলাকায় ব্যাপক প্রচারণা চালানো হয়। এছাড়া এসব নেতাদের ছবিযুক্ত চার রংয়ের পোস্টারে গোটা এলাকা ঢেকে দেয়া হয়। এমনকি সভা শুরু হওয়ার কয়েক ঘন্টা আগেও কেন্দ্রীয় এসব নেতাদের উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করে স্থানীয় নেতারা বক্তব্যও শুরু করেন।
কিন্তু বেলা গড়িয়ে বিকাল হলেও কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতি প্রত্যক্ষ না করে সমাবেশ স্থলে উপস্থিত প্রায় দশ থেকে বার হাজার জনতা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে বেলা চারটার কিছু পরে সাবেক এমপি এইচএম গোলাম রেজা তার বক্তব্য শুরু করেন এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ দলীয় এমপিকে ইঙ্গিত করে তার ষড়যন্ত্রে আজকের সমাবেশে কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত হতে পারেননি বলে অভিযোগ করেন।
গোলাম রেজা তার তিরিশ মিনিট কালের বক্তব্যে স্থানীয় সরকার দলীয় এমপির প্রতি ইঙ্গিত করে স্থানীয়দের নানাভাবে হয়রানীর অভিযোগ করে আসন্ন নির্বাচনে তার পাল্টা জবাব দেয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে গত কয়েক মাসে রুজু হওয়া যাবতীয় হয়রানীমূলক মামলা প্রত্যাহারে আশার বাণী শুনিয়েছেন।
জাপা (এ) দলীয় সাবেক এ এমপি আরও বলেন, বিএনপি নির্বাচনে না এলে বিকল্পধারা ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে। এছাড়া জাপা (এ) চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদের একই আসন থেকে নির্বাচন করার ঘোষণাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচনের মাঠে আসলে জানা যাবে এলাকাবাসির জন্য কে কতটা গ্রহণযোগ্য।
এর আগে উপজেলা জাতীয় পার্টি (এ) এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাফেজ আব্দুল রশিদ, মুফতি সুজন, শেখ শহীদসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।