খুলনায় বিশ্ব ডায়াবেটিকস দিবস পালিত


প্রকাশিত : November 15, 2018 ||

 

পত্রদূত ডেস্ক: বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে বুধবার খুলনায় বিশ্ব ডায়াবেটিকস দিবস এবং বিশ্ব এন্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ-২০১৮ পালিত হয়। দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘ডায়াবেটিকস প্রতিটি পরিবারের উদ্বেগ’ এবং এন্টিবায়োটিক সপ্তাহের প্রতিপাদ্য ‘অযথা এন্টিবায়োটিক সেবন ক্ষতির কারণ, বিনা প্রেসক্রিপশনে তা কিনতে বারণ’। খুলনা সিভিল সার্জন অফিস ও জেনারেল হাসপাতাল যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। দিবসটি উপলক্ষে সকালে খুলনা জেনারেল হাপাতালের সভাকক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনার সিভিল সার্জন ডাঃ এএসএম আব্দুর রাজ্জাক। সভায় বক্তৃতা করেন জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মাহাবুবুর রহমান এবং সার্জারী বিভাগের বিশেষজ্ঞ ডাঃ মো. রফিকুল ইসলাম। সভা পরিচালনা করেন সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল কালাম আজাদ। এসময় চিকিৎসক ও নার্সরা উপস্থিত ছিলেন। অতিথিরা বলেন, দেশে প্রতি তিন জনের মধ্যে এক জনের ডায়াবেটিকস। ডায়াবেটিকস হলে ভয়ের কোন কারণ নেই। ডায়াবেটিকস  নিয়ন্ত্রণে রাখতে হলে নিয়মিত ব্যায়াম ও হাঁটাহাটি করতে হবে। ভাতের পরিবর্তে অন্যান্য খাবার বেশি খেতে হবে এবং শারীরিক পরিশ্রমের কাজ করতে হবে। ডায়াবেটিকস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি বেশি জরুরি। অপরিকল্পিত গর্ভধারণের কারণেও ডায়াবেটিকস বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া অতিমাত্রায় ফাস্টফুড ও কোমল পানীয়র মতো ক্যালরিসমৃদ্ধ খাদ্য গ্রহণের ফলে বাড়ছে এর ঝুঁকি। এই খাবারগুলো সকলকে পরিহার করতে হবে। উল্লেখ্য, নিয়মিত ব্যায়ামে শক্তি খরচ হয় ফলে শরীরের ওজন কম থাকে ও চর্বি কমে। এর মাধ্যমে প্যানক্রিয়াসের বেটা সেল থেকে ইনসুলিন তৈরি বৃদ্ধি পায়, ব্যায়ামের ফলে শরীরের রক্ত সঞ্চালন বাড়ে, উচ্চরক্তচাপ কমায়, দুশ্চিন্তা দূর করে, ঘুম ভালো হয়, যৌন ক্ষমতা অটুট রাখে, হাড় ও হৃৎপিন্ডকে শক্তিশালী করে, জয়েন্ট সচল বাড়ে, ব্যায়াম রক্তের ভালো কোলস্টেরল (এইচডিএল) বাড়ায় এবং খারাপ কোলস্টেরল (এলডিএল) কমাসহ বিভিন্ন  সমস্যা দূর করে। এ ছাড়া নিয়মিত ব্যায়াম করলে ডায়াবেটিস দেরিতে হবে অথবা নাও হতে পারে।

 

এর আগে জেলারেল হাসপাতাল চত্ত্বর থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে হাসপাতাল চত্বরে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করে। বিশ্ব এন্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ চলবে আগামী ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত।