পাটকেলঘাটায় এক নারীর দ্বিতীয় স্বামীর ইটের আঘাতে প্রথম স্বামী আহত


প্রকাশিত : নভেম্বর ১৬, ২০১৮ ||

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রথম স্বামীকে ইট দিয়ে মেরে গুরুতর জখম করেছে হালিমা নামের এক নারীর দ্বিতীয় স্বামী। জানা যায়, ১৫ বছর আগে পাটকেলঘাটা থানার ধানদিয়া ইউনিয়নের আলিপুর গ্রামের বাসিন্দা হালিমা খাতুন (৩৮) প্রথম বিয়ে করে একই ইউনিয়নের পাঁচপাড়া গ্রামের আজিবর রহমান সরদারের ছেলে মো. জিয়ারুল (৪২) নামের এক যুবককে। বিয়ের ১২ বছর পরে স্বামী জিয়ারুল অভাবের তাড়নায় মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমায়। জিয়ারুল মালয়েশিয়ায় তিন বছর থাকাকালীন সময়ে তার অর্জিত সকল অর্থ তার স্ত্রী হালিমা খাতুনের কাছে পাঠায়। সেই অর্থ দিয়ে হালিমা খাতুন তার নিজ নামে প্রায় ৪৫ শতাংশ জমি ক্রয় করে।
জিয়ারুল মালয়েশিয়ায় থাকাকালীন স্ত্রী হালিমা খাতুন একই এলাকার সিরাজুল ইসলাম (৩৬) কে বিয়ে করে। জিয়ারুল দেশে ফিরে দেখে স্ত্রী হালিমা খাতুন সিরাজুল ইসলামের সাথে বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে। অনেক খোঁজা-খুঁজির পর ঢাকায় যেয়ে এক আত্মীয়ের বাসা থেকে খুঁজে বাড়িতে ফিরিয়ে আনে। বাড়িতে আসার দশ দিন পরে আবার হালিমা খাতুন সিরাজুলের সাথে চলে যায়।
শুক্রবার হালিমা সিরাজুলের সাথে মেয়ের জামাইয়ের বাড়ি কলারোয়া থানার বেলেডাঙ্গা গ্রামে মেয়ের নবজাতককে দেখতে যায়। একই সময় স্বামী জিয়ারুলও মেয়ের বাড়ি বেড়াতে যায়। মেয়ের বাড়িতে থাকাকালীন সময়ে হালিমার সাথে জিয়ারুলের বাকবিতন্ডা বাঁধে। এক পর্যায়ে সিরাজুল ইট দিয়ে জিয়ারুলের মাথায় সজোরে আঘাত করে। এতে গুরুতর আহত হয় জিয়ারুল।
খবর পেয়ে কলারোয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে হালিমা এবং জিয়ারুলকে থানায় নিয়ে আসে।
মুচলেকা দিয়ে ধানদিয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বর আব্দুল মান্নান খাঁর জিম্মায় দিয়ে মিমাংসা করে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। এসময় জিয়ারুলের টাকা দিয়ে হালিমার নামে কেনা জমি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে জিয়ারুলকে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য লিখিত অঙ্গিকারনামা নেয়া হয়।