সাতক্ষীরা-১ আসনে চলছে জনতার চুলচেরা বিশ্লেষণ


প্রকাশিত : নভেম্বর ২৩, ২০১৮ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: জেলার প্রধান এবং প্রথম সংসদীয় আসন তালা ও কলারোয়া উপজেলা নিয়ে গঠিত সাতক্ষীরা-১ আসন। বরাবরই এ আসনে প্রধান দু’দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় থাকেন। এ আসনের সাংসদ-নেতাদের মূলত জেলা আওয়ামী লীগ-বিএনপির অন্যতম প্রধান নেতৃত্বে দেখা গেছে। তাছাড়া এ আসনটিতে যে দল বা জোটের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে তাদের দল বা জোটকে ক্ষমতায় দেখা গেছে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই জেলার অন্য ৩টি আসনের চেয়ে এ আসনটির দিকে নজর সকলের। চূড়ান্ত মনোনয়ের শেষ পর্যায়ে এসে প্রধান দু’টি দল ও শরিক জোটে কে হতে পারেন কান্ডারি তা নিয়ে চলছে জনতার চুলচেরা বিশ্লেষণ। জল্পনা-কল্পনা আর মুখোরচক ধারণার শেষ নেই এখানে। তবে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে ধারণা করা হচ্ছে শেষ পর্যন্ত নৌকার টিকিট আবারো পেতে পারেন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোটের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় পলিটব্যুরো সদস্য, দলটির জেলা শাখার সভাপতি ও বর্তমান সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। তাঁর পরেই নৌকার নিজস্ব মাঝির তালিকায় থাকতে পারেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও এই আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়র শেখ মুজিবুর রহমান। এরপর থাকতে পারেন জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক লায়লা পারভীন সেঁজুতি, তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সহ-সভাপতি সরদার মুজিব ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা কামরুজ্জামান সোহাগের নাম। আর ধানের শীষ প্রতীক এবারো হাতে থাকবে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রকাশনা সম্পাদক, দলটির জেলার সাবেক সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিবের। তবে বাঁধ সাধতে পিছে লাগতে পারেন জামাতের কেন্দ্রীয় নীতি নির্ধারক পর্যায়ের নেতা অধ্যক্ষ ইজ্জত উল্লাহ।