এমপিরা যেসব সুযোগ-সুবিধা পান


প্রকাশিত : ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ ||

পত্রদূত ডেস্ক: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য ৩০৫৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। যদিও নির্বাচনে অংশ নিতে আরও কয়েক হাজার ব্যক্তি আগ্রহ প্রকাশ করে বিভিন্ন দলের মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছিলেন। কিন্তু দলের সবুজ সংকেত না পাওয়ায় তারা নির্বাচন কমিশনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি।

বাংলাদেশে একজন সংসদ সদস্য বেতন-ভাতাসহ নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধা ভোগ করেন। তার হাতে থাকে নানা ধরনের ক্ষমতা। বিবিসি বাংলার খবরে বলা হয়, বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী একজন সংসদ সদস্য যেসব সুযোগ-সুবিধা পান সেগুলো হচ্ছে—

১. সংসদ সদস্যদের মাসিক বেতন ৫৫,০০০ টাকা

২. নির্বাচনি এলাকার ভাতা প্রতি মাসে ১২,৫০০ টাকা

৩. সম্মানী ভাতা প্রতি মাসে ৫,০০০ টাকা

৪. শুল্কমুক্তভাবে গাড়ি আমদানির সুবিধা

৫. মাসিক পরিবহন ভাতা ৭০,০০০ টাকা

৬. নির্বাচনি এলাকায় অফিস খরচের জন্য প্রতি মাসে ১৫,০০০ টাকা

৭. প্রতি মাসে লন্ড্রি ভাতা ১,৫০০ টাকা

৮. মাসিক ক্রোকারিজ, টয়লেট্রিজ কেনার জন্য ভাতা ৬,০০০ টাকা

৯. দেশের অভ্যন্তরে বার্ষিক ভ্রমণ খরচ ১,২০,০০০ টাকা

১০. স্বেচ্ছাধীন তহবিল বার্ষিক পাঁচ লাখ টাকা

১১. বাসায় টেলিফোন ভাতা বাবদ প্রতি মাসে ৭,৮০০ টাকা

১২. সংসদ সদস্যদের জন্য সংসদ ভবন এলাকায় এমপি হোস্টেল আছে।

এ ছাড়া ২০১৫-২০১৯ সাল পর্যন্ত একজন সংসদ সদস্য প্রতি বছর চার কোটি টাকা করে থোক বরাদ্দ পাবেন। এই থোক বরাদ্দের পরিমাণ আগে ছিল দুই কোটি টাকা।