আশাশুনির কুল্যায় ধর্ষণের পর হত্যাকান্ডের শিকার স্কুল ছাত্রী সুষ্মিতা দাসের স্মরণে শোকসভা


প্রকাশিত : জানুয়ারি ১০, ২০১৯ ||

কুল্যা (আশাশুনি) প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের গাবতলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী ও গাবতলা গ্রামের প্রশান্ত দাসের কন্যা সুষ্মিতা দাসের স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বেলা ১২টায় গাবতলা শ্মশানে স্কুল ছাত্রী সুষ্মিতা দাসের অন্তেষ্টিক্রিয়া শেষে গাবতলা প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে এক শোকসভার আয়োজন করা হয়। গাবতলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠিত শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা-৩ আসনের সংসদ সদস্য প্রতিনিধি শম্ভুজিৎ মন্ডল। এসময় সুষ্মিতা দাসের স্মরণে ১মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়। শোকসভায় অন্যান্যের মধ্যে দরগাহপুর কলেজিয়েট স্কুলের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গৌরপদ মন্ডল, বিজিবি সার্জেন্ট জাকির হোসেন, ব্র্যাক মানবাধিকার আইন সহায়তা প্রজেক্টের জেলা কর্মকর্তা বিশ্বনাথ কুন্ডু, কুল্যা ইউনিয়ন পূজা উদ্যাপন পরিষদ সভাপতি ও গাবতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পরিমল কুমার দাস, কুল্যা ইউপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম পান্না, ইউপি সদস্য উত্তম কুমার দাস, প্রধান শিক্ষিকা সুমিতা চৌধুরী, শিক্ষক মনি মোহন, সাবেক মেম্বার সুমল দাসসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও স্কুলের ছাত্র ছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। শোকসভায় অবুঝ শিশু কন্যা সুষ্মিতা দাসের সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনা যাতে আর পুণরাবৃত্তি না হয় তার জন্য বক্তাগন ধর্ষক ও হত্যাকারী লম্পট জয়দেব সরকারের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবী জানান। উল্লেখ্য, গত রবিবার রাতে আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের গাবতলা গ্রামের প্রশান্ত দাশের কন্যা গাবতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী সুষ্মিতা দাশকে একই এলাকার নির্মল সরদারের পুত্র বুধহাটা বিবিএম কলেজিয়েট স্কুলের একাদশ শ্রেণির ছাত্র জয়দেব সরকার কর্তৃক ধর্ষণের পর পানিতে ফেলে হত্যা করে। পরে পুলিশ ধর্ষক জয়দেবকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করেন।