শার্শার পদ্মবিলে দেশি বিদেশী পরজয়া পাখির অভয়াশ্রম


প্রকাশিত : জানুয়ারি ১১, ২০১৯ ||

এম এ রহিম, বেনাপোল (যশোর): মৗসুমি বায়ু পরিবর্তনের পালাবদলের সাথেই পৌষের হাড়কাঁপানো শীতেও বিভিন্ন প্রজাতির দেশি বিদেশী পরজয়া পাখির আগমনে মুখরিত ও অভয়াশ্রমে পরিনত শার্শার পদ্মবিল। পঞ্চাশগজ দুরেই ওপারে ভারতের কাটাতারের বেড়া। পাশেই সবুজ বেষ্টনিতে ঘেরা শার্শা উপজেলার দুর্গাপুরের ৬৫বিঘার জমিতে বিশাল জলাশয়ে পদ্মবিলে হরেক রকম পাখির অভ্যারণ্য গড়ে উঠেছে। নিরিবিল মনোরম পরিবেশে গড়ে ওঠা অভয়াশ্রমে পাখির কলতানে মুখরিত এলাকা। প্রতিদিন এদৃশ্য উপভোগ করছে বিভিন্ন এলকা থেকে আসা পাখিপ্রেমী মানুষ।
দূর্গাপুর গ্রামের হাজী গোলাম মোর্সেদের ভেড়িবাধের এলাশয়ে চরছে সরাইল, পানকৌরি, ডংকুর, বেগ, কাসতেচুড়া। উড়ছে তারা আকাশ নীড়ে। পাখির কিচির মিচিরে মুগ্ধ হচ্ছে মানুষ। পাখির অভায়রণ্যে প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে আসছে নারী শিশুসহ দর্শণার্থীরা। উপভোগ করছেন প্রাকৃতিক দৃষ্য। নিরাপদ ও এলাকাবাসির কড়া নজরদারী থাকায় সবুজ বেষ্টনীতে ঘেরা জলাশয়ে পাখির অভয়ারণ্য গড়ে উঠেছে বলে জানান স্থানীয়রা।
শার্শা উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা জয়দেব কুমার সিংহ বলেন, সন্ধ্যায় আসে হাজার হাজার পাখি, সকালে খাদ্যের সন্ধানে ফিরে যায় তারা। তবে উপজেলায় অনেকস্থানে পাখি শিখারীরা ফাঁদ ও ইয়ারগান দিয়ে করছেন পাখি শিকার। ফলে পরিবেশে বিরুপ প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা থাকছে। তবে পদ্মবিলসহ বিভিন্ন এলাকায় পাখি সংরক্ষণে কাজ করছেন উপজেলা প্রাণি সম্পদ বিভাগ। উপজেলা প্রাণি সম্পদ দপ্তরে পাখির অভয়াশ্রম গড়ে তোলার কাজ চলছে বলে জানান তিনি।