ওয়ার্ল্ড কাষ্টম অর্গানাইজেশনের আন্তর্জাতিক শ্রেষ্ঠ দুটি স্বীকৃতি পেল বেনাপোল


প্রকাশিত : জানুয়ারি ২৬, ২০১৯ ||

এম এ রহিম, বেনাপোল (যশোর): আমদানি রপ্তানি বানিজ্যে স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা উন্নয়ন অগ্রগতি রাজস্ব বৃদ্ধি যানজট নিরসন আধুনিকায়নসহ একাধিক কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ দেশের শ্রেষ্ট্র বন্দর ও কাষ্টমসের স্বীকৃতি পেল বেনাপোল বন্দর ও কাষ্টম। ওয়ার্ল্ড কাষ্টম অর্গানাইজেশন ও বিশ্ব ব্যাংক দিল এ্যাওয়ার্ড। এর ফলে ব্যবসায়িসহ বন্দর ব্যবহারারীদের মধ্যে ফিরেছে স্বস্তি। বইছে আনন্দের জোয়ার, খুশি তারা।
স্বাধীনতা পরবর্তী ১৯৭২ সালে মুজিব-ইন্দিরা চুক্তির পর থেকে শুরু হয় বেনাপোল-পেট্টাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে আমদানি রপ্তানি বানিজ্য। ২০০৯ সাল থেকে বেড়ে যায় আমদানি রপ্তানি। গত ৫ বছরের ব্যবধানে পাল্টে যায় বেনপোলের দৃশ্যপট। একাধিক শেড এয়ার্ড, বাইপাস সড়ক, টার্মিনাল, স্কেল, ক্রেন, ফরক্লিপ, রসাইনিক, পরীক্ষাগার, জমি হুকুমদখল, অটোমেশন, আধুনিকায়নসহ একাধিক উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ। বেনাপোল চেকপোষ্ট কাষ্টম ও ইমিগ্রেশনেও লাগে আধুনিকতার ছাপ। বাড়ে যাত্রী সেরা। কমে দুর্ভোগ ও হয়রানি। রপ্তানি যায় বেড়ে।
বেনাপোল আমদানি রপ্তানি কারক সমিতি যুগ্ম সম্পাদক মহাসিন মিলন বলেন, বাইপাস সড়ক চালু, নতুন ল্যাব তৈরী, যানজট নিরসন, এসআই কোটা, ওয়ার্ল্ডের মাধ্যমে সঠিক শুল্কায়নে রাজস্ব বৃদ্ধি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার ফলে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাওয়ায় ব্যবসায়িরা গর্বিত। বাড়ছে সুযোগ সুবিধাসহ রাজস্ব আয়।
সিএন্ডএফ ব্যবসায়ি জামাল হোসেন ও আলীকদর সাগর বলেন, ওয়ার্ল্ড কাষ্টম অর্গানাইজেশন ও বিশ্ব ব্যাংক কর্তৃক ২টি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাওয়ায় মহা খুশি তারা। এ প্রাপ্তি ব্যবসায়িদেরকে আশান্বিত করে। তবে বন্দরে আরো জমি একোয়ার করে অবকাঠামোগত উন্নয়ন বাড়ানোসহ ইকুপমেন্ট বৃদ্ধির প্রয়োজন। বানিজ্যকে আরো গতিশীল করতে পন্য পরীক্ষণ সহজিকরণসহ দ্রুত ছাড় করনের ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য কাষ্টম কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
বাংলাদেশ-ভারত চেম্বার অব কমার্স উপ কমিটির চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান বলেন, অর্থনৈতিক সুচকও বিভিন্ন ধারা বৃদ্ধিতে ৭বছর যাবত ওয়ার্ল্ড কাষ্টম অর্গানাইজেশন বিভিন্ন সংস্থাকে স্বীকৃতি দিয়ে আসছে। এর ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালে এ্যাওয়ার্ড পায় বেনাপোলের বিশিষ্ট ব্যবসায়ি মতিয়ার রহমান ও ঢাকার এক ব্যবসায়ি। দু’বছর আগে বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ এবং বেনাপোল কাষ্টম কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী। বিগত বছরে বন্দর ও কাষ্টম কর্তৃপক্ষের একাধিক উন্নতির ফসল হিসেবে সর্ব্বোচ্চ স্বীকৃতি ওয়াল্ড ব্যাংক এ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী, বেনাপোল পোর্ট অথরিটি পাচ্ছেন ওয়াল্ড কাষ্টম অর্গানাইজেশন কর্তৃক এ্যাওয়ার্ড। ব্যাংলাদেশ র‌্যাবকেও দেওয়া হয় ওয়ার্ল্ড কাষ্টম অর্গানাইজেশন কর্তৃক এ্যাওয়ার্ড। এ এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তির ফলে আগ্রহ বাড়বে ব্যবসায়িদের। তিনি আরো বলেন বেনাপোল দিয়ে ভারত বাংলাদেশ নেপাল ভুটান নয় মিডিলিষ্টভুক্ত দেশেও বানিজ্যের সম্ভাবনার সুযোগ তৈরীর প্রয়োজন। দেশ আজ বর্হিবিশ্বের কাছে মাথা উচু করে দাড়িয়েছে। বানিজ্যের অগ্রগতিকে ধরে রাখতে সংশ্লিষ্ট সব দপ্তরকে আরো আন্তরিক হয়ে কাজ করার আহব্বান জানান তিনি।