কলারোয়ায় নতুন বইয়ের সম্ভারে পূর্ণতা পাচ্ছে ‘শিবিল স্মৃতি বুক কর্নার’


প্রকাশিত : জানুয়ারি ৩০, ২০১৯ ||

কলারোয়া প্রতিনিধি: কলারোয়ায় শিবিল স্মৃতি বুক কর্নার’ ক্রমেই পূর্ণতা পাচ্ছে নতুন নতুন বইয়ের সম্ভারে। উদ্বোধনের ১০ দিনের মাথায় এ বুক কর্নারে যুক্ত হলো দেড় শতাধিক নতুন বই। সবগুলো নতুন বই শিশুদের পড়ার উপযোগী। সদ্য প্রয়াত শিবিলের পিতা ব্র্যাক ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আছাদুজ্জামান আছাদের সংগৃহীত এ নতুন বই বুধবার কলারোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমানের হাতে তুলে দেন এই বুক কর্ণারের অন্যতম সংগঠক কলারোয়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি আজাদুর রহমান খান চৌধুরী পলাশ, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মোশাররফ হোসেন, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রধান শিক্ষক রাশেদুল হাসান কামরুল ও সাংবাদিক এমএ সাজেদ। নতুন বই হস্তান্তরকালে অতিথিবৃন্দ বলেন, মহান ভাষা আন্দোলনের মাস ফেব্রুয়ারিতে এই বুক কর্ণারে যুক্ত হবে আরও নতুন নতুন বই। সংগঠকবৃন্দ জানান, তাঁরা এই বুক কর্ণারটি অচিরেই একটি পূর্ণাঙ্গ পাঠাগারে রূপ দিতে চান। এ জনপদের মানুষের জন্য সময়োপযোগী সব ধরনের বইয়ের সম্ভার এখানে গড়ে তুলতে চান। শিশুদের পাশাপাশি অভিভাবকসহ সকল পেশাজীবী মানুষ যেনো এই প্রতিষ্ঠানে পাঠাভ্যাসসহ জ্ঞানচর্চা করতে পারেন, এমন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে চান সংগঠকবৃন্দ। প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমান জানান, তাঁর স্কুলের প্রাক-প্রাথমিক কক্ষে স্থাপিত এই শিবিল স্মৃতি বুক কর্নার’ এ ছাত্র-ছাত্রীদের পড়ার জন্য তিনি একটি সময়সূচি নির্ধারণ করেছেন। স্কুল চলাকালীন নির্দিষ্ট সময়ে কচি কোমল শিক্ষার্থীরা আপন মনে এখানে বসে বই পড়ে। এ সময় তারা করে না কোনো চিরায়ত কোলাহল। সব মিলিয়ে এই বুক কর্ণার পাঠক ও পড়–য়াদের দৃষ্টি কাড়তে সক্ষম হবে বলে প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমান অভিমত ব্যক্ত করেন। প্রসঙ্গত: উল্লেখ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর’২০১৮ ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে কাজী আওনাফ আতিফ শিবিলের (১৯) অস্ত্রোপচার করা হয়। কিন্তু অস্ত্রোপচারের পর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় গত ৬ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে মৃত্যুবরণ করেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স প্রথম বর্ষের মেধাবী ছাত্র শিবিল।