সাংবাদিকতার গুণগত মানোন্নয়নে ঐক্যের কোন বিকল্প নেই: আবুল কালাম আজাদ


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯ ||

পত্রদূত ডেস্ক: গণমাধ্যম কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে সকল অসঙ্গতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক পত্রদূতের উপদেষ্টা সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, সাংবাদিকরাই জনগণের শেষ ভরসাস্থল। অন্যায়, অবিচার, জুলুম, নির্যাতন, নিপীড়নের বিরুদ্ধে সংবাদকর্মীদের লেখনি সমাজকে জাগ্রত করে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে সাংবাদিকদের ভূমিকা চিরকাল আলোর পথ দেখায়। সাংবাদিকদের অনৈক্যের সুযোগ কাজে লাগায় বিশেষ মহল। মাদক, সন্ত্রাস, চোরাচালান ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের কলম চলবে অবিরাম গতিতে। সাংবাদিকদের বিনোদনের প্রতিষ্ঠান প্রেসক্লাব। এই প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন নিয়ে অনেক সময় সাংবাদিকদের দ্বিধা বিভক্ত করতে চায় বিশেষ মহল। যা কারো কাম্য নয়। প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় হওয়া উচিৎ। সকলের অংশগ্রহণে ও মতামতের ভিত্তিতে কমিটি গঠন হলে বিশেষ পক্ষ ষড়যন্ত্রের সুযোগ পায় না। সাংবাদিকদের অনৈক্যের কারণে সুবিধা পায় বিশেষ মহল। এতে নির্যাতনের শিকার হয় সাংবাদিকরা। তাই সকল সাংবাদিককে একই ছাদের নিচে বসে নিজেদের সমস্যার সমাধান করতে হবে। বিশেষ মহল যাতে সুযোগ না পায় সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে। পেশাদারিত্ব ও সাংবাদিকতার গুণগত মানোন্নয়নে ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। বৃহস্পতিবার রাতে দেবহাটা উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিদের একাংশ দৈনিক পত্রদূত অফিসে উপদেষ্টা সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের সাথে সাক্ষাৎ ও ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময় করতে আসলে তিনি এসব কথা বলেন। দেবহাটা উপজেলায় কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা এসময় তাদের সমস্যার কথা তুলে ধরলে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সমস্যা সমাধানে গুরুত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনা ও পরামর্শ দেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন দৈনিক পত্রদূতের বার্তা সম্পাদক এসএম শহীদুল ইসলাম, সহকারী সম্পাদক সাখাওয়াত উল্যাহ, দেবহাটা প্রেসক্লাবের সাংবাদিক আব্দুর রব লিটু, আকতার হোসেন ডাবলু, সৈয়দ রেজাউল করিম বাপ্পা, নির্মল কুমার মন্ডল, মীর খায়রুল আলম, কেএম রেজাউল করিম, আরাফাত হোসেন লিটন, আজিজুল হক আরিফ, মোমিনুর রহমান, অধ্যাপক ইয়াসিন আলী, এমএ মামুন, আব্দুল আলিম মিঠু, জিএম আব্বাস উদ্দীন, মোসলেম আলী প্রমুখ।