‘আইজি ব্যাজ’ পাচ্ছেন ৫০১ পুলিশ সদস্য


প্রকাশিত : February 1, 2019 ||

ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে এবার সারা দেশে ৫০১ জন পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য পাচ্ছেন পুলিশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘আইজিপি এক্সেমপ্লারি গুড সার্ভিস ব্যাজ’। আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় পুলিশ সপ্তাহে মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী এই পুরস্কার তুলে দেবেন।

পুলিশ সদর দফতরের ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড স্পেশাল অ্যাফেয়ার্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক আদেশে পদকপ্রাপ্তদের নামের তালিকা জানানো হয়েছে। পদকের জন্য নির্বাচিতদের আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি রাজারবাগ পুলিশ গ্রাউন্ডে উপস্থিত হয়ে রিপোর্ট করতে বলা হয়েছে।

এর আগে ২০১৮ সালে ৩২৯ জন ও ২০১৭ সালের পুলিশ সপ্তাহে ২৮৮ জন পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য আইজি ব্যাজ পুরস্কার পান। পুলিশ সদর দফতর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, এবারের পুলিশ সপ্তাহে জঙ্গি ও মাদক নির্মূলকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। একারণে এবারের পুলিশ সপ্তাহের প্রতিপাদ্য নির্বাচন করা হয়েছে ‘পুলিশ-জনতা ঐক্য গড়ি, জঙ্গি-মাদক নির্মূল করি’। সংশ্লিষ্টরা জানান, আগামী ৪ থেকে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলমান পুলিশ সপ্তাহে পুলিশের পক্ষ থেকে মেডিক্যাল কলেজ, আইজিপি পদের পরিবর্তে চিফ অব পুলিশ পদ সৃষ্টি, ফোর স্টার জেনারেলের মর্যাদা, লক্ষাধিক নতুন জনবল নিয়োগসহ অন্যান্য সমস্যা নিয়েও আলোচনা করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালে সারা দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, জননিরাপত্তা বিধান, জনসেবামূলক কর্মকাণ্ড, মামলার রহস্য উদঘাটন, জনমুখী পুলিশিং, সরকারি ও ব্যক্তিগত কাজের মাধ্যমে পুলিশ বাহিনীর ভাবমূর্তি বাড়ানোসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজে অবদানের ভিত্তিতে আইজি ব্যাজ পদকের জন্য যোগ্য কর্মকর্তা ও সদ্যস্যদের নির্বাচিত করা হয়েছে। এবার সারা দেশের অ্যাডিশনাল ডিআইজি থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত ৫০১ জন পুলিশ সদস্যকে মোট ছয়টি ক্যাটাগরিতে দেওয়া হচ্ছে পুরস্কার। এর মধ্যে এ ক্যাটাগরিতে ১৪৩ জন, বি ক্যাটাগরিতে ১৫৯, সি ক্যাটাগরিতে ৮৩ জন, ডি ক্যাটাগরিতে ১৫ জন, ই ক্যাটাগরিতে ৬৫ জন ও এফ ক্যাটাগরিতে ৩৬ জন পুলিশ সদস্য এই পুরস্কার পাবেন। পুরস্কার পাওয়া উল্লেখযোগ্য কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন— রংপুর রেঞ্জের অ্যাডিশনাল ডিআইজি মজিদ আলী, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরক্ত কমিশনার আমেনা বেগম, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (প্রটেকশন) হামিদা পারভীন, ডিসি ট্রাফিক লিটন কুমার সাহা, ডিএমপির ডিসি (অর্থ) শ্যামল কুমার মুখার্জী, ডিএমপির ডিসি (সিরিয়াস ক্রাইম) মীর মোদাচ্ছের হোসেন, ডিএমপির ডিসি (ডিবি-উত্তর) মশিউর রহমান, ডিএমপির ডিসি সুনন্দা রায়, সিটিটিসির ডিসি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, ডিসি ছানোয়ার হোসেন, ডিসি আব্দুল মান্নান, ডিবির এডিসি (দক্ষিণ) রাজীব আল মাসুদ, সাইবার ক্রাইমের ডিসি মিশুক চাকমা, সিটিটিসির এডিসি মাহফুজা লিজা, র‌্যাব-২ এর এসপি মহিউদ্দিন ফারুকী, র‌্যাব-৭ এর মেজর মো. মেহেদী হাসান, র‌্যাব-৮ এর মেজর খান সজীবুল ইসলাম, ডিবির এডিসি জুয়েল রানা, ডিবির এডিসি নিশাত রহমান মিথুন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পিআর শাখার এডিসি ওবায়দুর রহমান, সিটিটিসির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার আহসান হাবীব, সিটিটিসির এডিসি তৌহিদুল ইসলাম, সিদ্দিকুর রহমান, ডিএমপির খিলগাঁও জোনের এডিসি নাদিয়া জুঁই, ডিবির এডিসি (পূর্ব) মোহাম্মদ বশির উদ্দিন, ডিবির এসি (ডেমরা) নাজমুল হাসান ফিরোজ, ডিবির এডিসি (উত্তর) মহররম আলী, ডিবির এসি (পূর্ব) ইমতিয়াজ মাহমুদ, ডিবির এডিসি (দক্ষিণ) খন্দকার রবিউল আরাফাত, ডিবির এডিসি (পূর্ব) আতিকুল ইসলাম, ডিএমপির ট্রাফিক পূর্ব বিভাগের এডিসি নাজমুন নাহার, সাইবার ক্রাইম ইউনিটের এডিসি মো. নাজমুল ইসলাম, সিটিটিসির বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের এডিসি রহমত উল্ল্যাহ চৌধুরী, গোয়েন্দা পূর্ব বিভাগের এডিসি সোহেল রানা, ডিবির সিরিয়াস ক্রাইম বিভাগের এডিসি মাহমুদা আফরোজ লাকী, মৌলভীবাজারের কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ। কুমিল্লার দ্বেবিদার সার্কেলের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সেলিম মোহাম্মদ শেখ এবার আইজিপি ব্যাজ পদক পাচ্ছেন।

এছাড়া, আইজি ব্যাচ পাওয়ার তালিকায় রয়েছেন— পল্টন থানার ওসি মাহমুদুল হক, বনানী থানার ওসি ফরমান আলী, সিটিটিসির পরিদর্শক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।