কেশবপুরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অন্যের জমিতে জোরপূর্বক রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৯ ||

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: কেশবপুরের গৌরিঘোনা ইউনিয়নে আদালতের ১৪৪ ধারায় জারি করা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক অন্যের জমিতে রাস্তা নির্মানের অভিযোগ উঠেছে। এবিষয়ে জমির মালিক কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

জানা গেছে, উপজেলার গৌরিঘোনা ইউনিয়নের গোলাম রসুল জোয়ার্দার গংদের সাথে ওই এলাকার আব্দুল জোয়ার্দার খোকন গংদের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গোলাম রসুল জোয়ার্দার, আব্দুল গফফার জোয়ার্দার ও  গোলাম মোস্তফা জোয়ার্দার তিন ভাই উপজেলার ১৪০ নং সন্ন্যাসগাছা মৌজার আর এস খতিয়ান নং-৯৮১, হাল দাগ নং-৪২৮০ এর ৪২ শতক জমি পৌতৃক সুত্রে প্রাপ্ত হয়ে বসবাস করে আসছেন। ওই জমির উত্তর পার্শ হতে ৩ শতক জমি কোন প্রকার আপোশ মিমাংশা ছাড়াই জোরপূর্বক দখল করে রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা করছেন ওই গ্রামের আব্দুল জোয়ার্দার খোকন গংরা। এঘটনায় গোলাম রসুল জোয়ার্দার গত বছরের ২৯ মে যশোর আদালতে ১৪৪ ধারায় একটি মামলা করেন। যার নং-৬৬৫/১৮। আদালতের নির্দেশে কেশবপুর থানার সহকারী উপপরিদর্শক শ্যামল সরকার সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদান করেন। রিপোর্টে তিনি বলেছেন, উল্লেখিত জমি গোলাম রসুল জোয়ার্দার গংদ্বয় পৌতৃক সুত্রে প্রাপ্ত হয়ে এসএ ও হাল রেকর্ড করে নিজেরা শান্তিপূর্ণভাবে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন। ওই জমির পাশে ৩ শতক জমি জোরপূর্বক দখল করে রাস্তা নির্মানের চেষ্টা করা হচ্ছে। এঘটনায় তিনি আদালতের নির্দেশে ওই জমিতে শান্তি শৃংখলা বজার রাখার জন্য উভয় পক্ষের স্বাক্ষর গ্রহন করে গত বছরের ২৭ জুন  নোটিশ জারি করেন। বর্তমানে মামলাটি চলমান থাকা সত্তেও আদালতের নির্দেশনা অমান্য করে শনিবার সকালে গৌরিঘোনা গ্রামের আব্দুল জোয়ার্দার খোকনের নেতৃত্বে তার ভাই নুর আলী জোয়ার্দার, মোহাম্মদ আলী হাসান ও আফসার জোয়ার্দার সহ অজ্ঞাত নামা একদল ব্যক্তি এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী মহলকে ম্যানেজ করে গোলাম রসুল জোয়ার্দারের জমিতে জোরপূর্বক রাস্তা নির্মাণ করতে থাকে। এসময় বাধা দিতে গেলে, গোলাম রসুল জোয়ার্দার ও তার স্ত্রী হেলেনা বেগম এবং ছোট বোন মর্জিনাকে মারপিট করে আহত করে তারা। এঘটনায় কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) শাহজাহান আহমেদ বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।