জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় নিম্ন আয়ের মানুষের পুণর্বাসন দাবি


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: জেলার আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলায় কোচিং বাণিজ্য বন্ধে হাইকোর্টের রায়ের নীতিমালা অনুসরণ, শিশুদের যৌন হয়রানি বন্ধে অভিযোগ বক্স স্থাপন এবং সম্প্রতি সাতক্ষীরায় উচ্ছেদ হওয়া নিম্ন আয়ের মানুষের পূর্নবাসনের দাবি জানানো হয়েছে।
রোববার সকাল ১০টায় সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল খালেক, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ এম আফজাল হোসেন, সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. রফিকুল ইসলাম, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বদিউজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইলতুৎমিশ, পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতী, সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক কেএম আনিছুর রহমান প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সাতক্ষীরা জজকোর্টের অতিরিক্ত পিপি এড. ফাহিমুল হক কিসলু, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা তারাময়ী মুখার্জীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও নেতৃবৃন্দ।
সভায় নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা শহরকে যানজটমুক্ত করতে জেলা প্রশাসকের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এধরনের উদ্যোগ বহুবার নেওয়া হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত টিকে থাকে না। এ জন্য আমাদের মধ্যম পরিকল্পনা করে এটার স্থায়ী সমাধান করা উচিত। যানজট মুক্ত করতে গিয়ে অনেক গরীব মানুষের ছোট খাটো দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়েছে। তাদের দ্রুত কোন খাস জমিতে পুনর্বাসনের দাবি করেন। এছাড়া কোচিং বন্ধের বিষয়ে তিনি বলেন, আমাদের কাছে এমন অনেক গরিব অভিভাবকরা আসেন যে কোচিংয়ের টাকার জন্য সন্তানদের পড়াতে পারছেন না এমন অভিযোগ নিয়ে। যেহেতু কোচিংয়ের নীতিমালা রয়েছে। হাইকোর্টের রায়ের নীতিমালাটা সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যাতে মেনে চলেন সে বিষয়ে তদারকি করার আহ্বান জানান। এদিকে সাতক্ষীরা পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতী শিশুদের যৌন হয়রানি বন্ধের জন্য প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিশুদের অভিযোগ বক্সস্থাপনের দাবি জানান।