কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে সংখালঘুর দোকান দখলের অভিযোগ


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাতক্ষীরা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে শহরের রকসি সিনেমা হলের পূর্বপাশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক ব্যক্তির দোকানঘর লুটপাট করে দখল করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় শহরের ইটাগাছা পালপাড়া এলাকার মৃত সমর সিংহ’র ছেলে সুজ্জল কুমার সিংহ আহত হয়েছেন।।
সুজ্জল কুমার সিংহ বলেন, আমি সাতক্ষীরার পলাশপোল মৌজার ২৭৯৪ খতিয়ানের ১১৪৫৫ দাগের সাড়ে ৫ শতক জমি ক্রয়সূত্রে মালিক। জমি আমার দখলে আছে এবং ওই জমিতে আমার ২টা দোকান আছে। জমি ক্রয়ের পর হতে দক্ষিণ পলাশপোল এলাকার আমিন আলীর ছেলে ইসমাইল হোসেন বাবু গংরা জোরপূর্বক ওই জমি দখলের চেষ্টা শুরু করে। এরপর আমি ওই জমির বিষয় নিয়ে ২০১৮ সালের ২৫ মার্চ ১৪৫ ধারায় আদালতে মামলা করি। মামলা নং পি ৫৫৯/১৮। আমি বর্তমানে ওই দোকানে মেশিনারিজের ব্যবসা করছি। আমার দোকানের ভিতরে আনুমানিক ৮লাখ টাকার চায়না সেলোমেশিনসহ মেশিনের পার্টসপাতি আছে। রোববার বিকাল ৫টার দিকে দক্ষিণ পলাশপোল এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে শফিকুল ইসলাম বাবু, আমিন আলীর ছেলে ইসমাইল হোসেন বাবু, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল রহিম, রফিকুল ইসলামের ছেলে চঞ্চল হোসেন, আব্দুর রহিমের ছেলে রাজিব হোসেন, মৃত নির্মল কুমারের ছেলে সোনাসহ অজ্ঞাত আরও ৯/১০ জন অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমার দোকানঘর লুটপাট করে আমার দোকানে তালা দিয়ে চলে যায়। এরপর আমার দোকানে তালা দিয়ে দখল করে নেয়। আমি বাধা দিতে আসলে তারা আমাকে আমাকে লাঠি ও রড দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম বাবু বলেন, ওই জমি ও দোকান সুজ্জলদের না। যাদের জমি তারাই দোকান দখল করেছে।
ওই জমিতে ১৪৫ ধারায় মামলা চলছে কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ওই জমিতে মামলা চলছে কিনা তা আমার জানা নেই।