কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগর ও নলতা ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯ ||

বিশেষ প্রতনিধি: কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে তিনজন, ৩ নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে চারজন এবং নলতা ইউপি’র ৪, ৫, ৬ ওয়ার্ড সংরক্ষিত (মহিলা) পদে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলা নির্বাচন অফিসার জমিরুল হায়দার প্রতীক বরাদ্দ দেন। প্রতীক বরাদ্দের পরপরই নির্বাচনী প্রচার শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছেন প্রার্থীরা।
কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসের ডাটাএন্টি অপারেটর খলিলুল রহমান জানান, কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের বেনাদনা গ্রামের ফেরাজতুল্লাহ বিশ্বাসের ছেলে আওয়ামী লীগ মনোনীত মোস্তফা কবিরুজ্জামান পেয়েছেন নৌকা প্রতীক, জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রয়াত ইউপি চেয়ারম্যান কেএম মোশাররফ হোসেনের স্ত্রী আকলিমা খাতুন লাকী পেয়েছেন লাঙ্গল প্রতীক, হোসেনপুর গ্রামের রজব আলীর ছেলে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রহমান পেয়েছেন আনারস প্রতীক।
কৃষ্ণনগর ৩নং ওয়াার্ডে সদস্য পদে চার প্রার্থীর মধ্যে শংকরপুর গ্রামের শ্যামলী সরদারের ছেলে আরব আলী পেয়েছেন মোরগ প্রতীক, রামনগর গ্রামের শেখ আবুল বাশারের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান পেয়েছেন টিউবওয়েল, রামনগর গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে ফারুক হোসেন পেয়েছেন তালা প্রতীক, রামনগর গ্রামের শওকত আলী ঢালীর ছেলে সাইফুল রহমান পেয়েছেন ফুটবল প্রতীক।
এছাড়াও নলতা ইউনিয়ন পরিষদের ৪, ৫, ৬ ওয়ার্ড সংরক্ষিত (মহিলা) পদে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে পশ্চিম নলতা গ্রামের সালাহউদ্দিন আহমেদের স্ত্রী আকিবা সুলতানা পেয়েছেন বই প্রতীক, পশ্চিম নলতা গ্রামের মৃত কওছার আলীর স্ত্রী জরিনা খাতুন পেয়েছেন হেলিকপ্টর, পূর্ব নলতা গ্রামের দুলাল চন্দ্র দাসের স্ত্রী পার্বতী রাণী দাস পেয়েছেন বক প্রতীক, পশ্চিম নলতা গ্রামের আরশাদ আলীর স্ত্রী আম্বিয়া পেয়েছেন মাইক এবং ইন্দ্রনগর গ্রামের মৃত ইসমাইল গাজীর মেয়ে সালেহা বেগম পেয়েছেন কলম প্রতীক।
আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি কৃষ্ণনগর ও নলতা ইউনিয়ন পরিষদে এই উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে।