বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে নিজাম উদ্দিন আওলিয়া মার্কাজের মুরব্বিসহ ২৯ সদস্য


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৯ ||

এমএ রহিম, বেনাপোল (যশোর): দিল্লী নিজামউদ্দিন আওলিয়া জামে মসজিদ (মার্কাজ মসজিদের) ইমাম মুরব্বি মাওলানা শওকত আল কাসমী ও দিল্লি জামে মসজিদের মুরব্বি মাওলানা শামীম আহম্মেদদের সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে বলেন, ‘দুনিয়াকি সব ভাল অর বুরায়ি আল্লাহ তালা দিনকে আন্দার রাক্ষি হায়। হাম সব আল্লাহকে অস্তে বেশী বেশী ওয়াক্ত লাগাইয়ি দুনিয়াবি সব আরাম আয়াশকা আল্লাহ অর রসুল অর সব আদমিকে ভালাইকে নিয়ে কাম করনে অর সাইয়িহে। হাম বিশ্ব ইজতেমামে শরীক হ কর তামাম আলমকে লিয়ে দোয়া ফারমায়েগি।’ স্থলপথে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে এসে বেনাপোল বাগ এ জান্নাত ক্বাওমী মাদ্রাসা ও মসজিদে অবস্থানকালে এভাবে কথা বলেন তারা।
তাবলীগ জামায়াতের বৃহৎ ধর্মীয় উৎস গণ জামায়েত টঙ্গির তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমা শুক্রবার ভোর থেকে আম-বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে। তবে এবার বিদেশী মুসল্লিদের উপস্থিতি কম। প্রতিবছর টঙ্গির তুরাগ তীরে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে বেনাপোল স্থলপথে হাজার হাজার বিদেশী মেহমান আসেন। বেনাপোল চেকপোস্ট বাগ এ জান্নাত ক্বাওমি মাদ্রাসা মাঠে বসে বিদেশী মেহমানদের মিলন মেলা। তবে এবার বিশ্ব ইজতেমায় আকাশ পথে বিদেশী মেহমান আসলেও বেনাপোল স্থলপথে কোন বিদেশী মেহমান আসতে দেখা যায়নি। অবশেষে শুক্রবার দুুপুরে ভারতের দিল্লি নিজামউদ্দিন আওলিয়া মার্কাসের মুরব্বি মাওলানা শওকত আল কাসমীর নেতৃত্বে দিল্লি জামে মসজিদের মুরব্বি মাওলানা শামীম আহম্মেদসহ ২৯সদস্যের মুসল্লিরা বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। দলটিকে চেকপোস্ট বড়আচড়া বাগ জান্নাত কাওমী মাদ্রাসায় নিয়ে আসা হয়। এখানে তাদেরকে সেবা দেন ঢাকা থেকে আগত ১৭সদস্যের বিশ্ব ইজতেমা কমিটির সদস্যরা। আপ্যায়ন শেষে বাস ও মাইক্রোযোগে আগতদেরকে টুঙ্গির উদ্দেশ্যে পাঠানো হয়েছে।
বিশ্ব ইজতেমা কমিটির সদস্য ঢাকা থেকে আগত বেনাপোলে অবস্থানরত আমির আলহাজ্ব কামাল হোসেন বলেন,প্রতি বছরের ন্যায় বিদেশী মেহমানদের সেবার জন্যে বেনাপোলে কাজ করেন তারা। এবার বিভিন্ন সমস্যার কারনে বিদেশী মেহমান এসেছে কম। ১৫দিনে ৫০জনও আসেনি বলে জানান তিনি। আল্লাহ ও রাসুল্লাহ (সা.) সহ মানুষের সেবা করতে পেরে খুশি তারা। দিনের কাজের সময় দিতে তারা বেনাপোলে কাজ করছেন। বাকী জীবন দিনের কাজ করে যেতে চান তাবলীগ জামাতের সদস্যরা।
আজ বিদেশী মেহমান এসেছেন বলে জানান, বিশ্ব ইজতেমা কমিটি-সদস্য-হাফেজ সদরুল ও আলহাজ্ব আশরাফ আলী। একটি পরিবহন যোগে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে ৪০জনকে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তারা।
বাগ এ জান্নাত কাওমী মাদ্রাসা ও মসজিদ কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম ও আবদার রহমান- বলেন,অভ্যাগতদের পৌছে দিচ্ছেন গন্তব্যে এতেই মহা খুশী বিদেশী মেহমানরা। দিনের কাজে সময় দিতে পেরে আনন্দিত তারা। বিদেশী মেহমানদের সার্বিক সহযোগিতা দেওয়া হচ্চে মসজিদ থেকে।
ইন্দোনেশিয়া, মালেশিয়া, আফ্রিকা, তুর্কিস্থান, শ্রীলংকা, ফিলিপাইন, ভারত-সৌদি আরব, কম্বোডিয়া, অস্ট্রেলিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আকাশ ও স্থল পথে এবার কম মুসল্লি। এসেছে বলে জানান তারা।
উল্লখ্য, বিশ্ব ইজতেমায় বয়ান ও মোনাজাত করতে পারেন। শওকত আল কাসমী ও শামীম আহম্মেদেদ। প্রতিবার বিমানে গেলেও এবার বিশেষ কারনে যাচ্ছেন স্থলপথে জানান সাথিরা। যশোর মার্কাসের আমির রেজাউল ইসলাম বলেন, দিন ও দুনিয়াবি কাজে সাথীদের সহযোগিতা ও মানুষকে তাবলীগের পথে আসার আহব্বানে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন তারা।