কলারোয়ায় ‘শিবিল স্মৃতি বুক কর্নারে এ যুক্ত হলো আরও অর্ধ শতাধিক নতুন বই


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৯ ||

কলারোয়া প্রতিনিধি: কলারোয়ায় শিবিল স্মৃতি বুক কর্ণার’ ক্রমেই পূর্ণতা পাচ্ছে নতুন নতুন বইয়ের সম্ভারে। শুক্রবার এ বুক কর্নারে যুক্ত হলো আরও অর্ধ শতাধিক নতুন বই। সব মিলিয়ে উদ্বোধনের ২৫ দিনের মাথায় এ প্রতিষ্ঠানের নতুন বইয়ের সংখ্যা আড়াই শ’ পেরিয়ে গেলো। সবগুলো নতুন বই শিশুদের পড়ার উপযোগী। সদ্য প্রয়াত শিবিলের পিতা ব্র্যাক ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট কাজী আছাদুজ্জামান আছাদের নিজ হাতে সংগ্রহ করা এ নতুন বই শুক্রবার কলারোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমানের হাতে তুলে দেন তিনি নিজেই। এসময় বিশিষ্ট ব্যাংকার কাজী আছাদুজ্জামান আছাদ এই বুক কর্ণারের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তিনি এই প্রতিষ্ঠানটির কলেবর বৃদ্ধিতে সব ধরনের প্রয়াস চালিয়ে যেতে চান। তিনি চান, এই প্রতিষ্ঠানটি এ জনপদের মানুষের কাছে পাঠাভ্যাসের প্রাণকেন্দ্রে পরিণত হোক। শিশুতোষ বই ছাড়াও সব ধরনের বইয়ের সমাহার ঘটাতে সংগঠকদের প্রতি তিনি আহবান জানান। সব ধরনের পাঠকের চাহিদা মেটাতে নিরন্তর প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার কথা বলেন কলারোয়ার কৃতি এই ব্যক্তিত্ব। নতুন বই হস্তান্তরকালে উপস্থিত ছিলেন শিবিল স্মৃতি বুক কর্ণার’র অন্যতম সংগঠক কলারোয়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি আজাদুর রহমান খান চৌধুরী পলাশ, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি প্রধান শিক্ষক আখতার আসাদুজ্জামান, উপজেলা দুপ্রক সদস্য শিক্ষক উৎপল কুমার সাহা। প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমান জানান, তাঁর স্কুলের প্রাক-প্রাথমিক ক্েক্ষ স্থাপিত এই শিবিল স্মৃতি বুক কর্ণার’ এ ছাত্র-ছাত্রীদের পড়ার জন্য তিনি একটি সময়সূচি নির্ধারণ করেছেন। স্কুল চলাকালীন নির্দিষ্ট সময়ে কচি কোমল শিক্ষার্থীরা আপন মনে এখানে বসে বই পড়ে। সব মিলিয়ে এই বুক কর্নার পাঠকদের দৃষ্টি কাড়তে সক্ষম হবে বলে প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমান আশাবাদ ব্যক্ত করেন। প্রসঙ্গত: উল্লেখ্য, গত ৬ জানুয়ারি ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স প্রথম বর্ষের মেধাবী ছাত্র কাজী আওনাফ আতিফ শিবিল (১৯) মৃত্যুবরণ করেন। অকাল প্রয়াত শিবিল স্মরণে গত ২১ জানুয়ারি উদ্বোধন করা হয় ‘শিবিল স্মৃতি বুক কর্ণার’।