মাটি


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯ ||

ফিরোজ আহমেদ

সবাই যে যার মতো সটকে পড়েছে। যাকগে।
আমি নিয়েছি পোড়ামাটি নীতি।
যে যেখানে পারে চলে যাক
আমি এই মাটি কামড়েই পড়ে থাকবো।

বর্ধিত বেতনের দাবীতে এখানেই গুলি খাবো।
তালামারা কপাটের অন্তরালে-সাত বছরের জন্যে
আঁটকে যাবো সাগর-রুনি হত্যাকাÐের তদন্তের মতন।

তবু –গ্রামের সীমান্তে বজ্রাহত তালগাছের উপমায়
এই মাটিতেই আমি দাঁড়িয়ে থাকবো, রুদ্রের কবিতা হয়ে

আল মাহমুদের রচনাবলী ফেলে
কোথায় যাবো বলো ! সুলতানের উন্মোচিত এই পেশীর
প্রতিটি তন্ত্রীতে জড়িয়ে গেছে মহাকালের চর্যা
কি করে চলে যেতে পারি আমি !

ফিরিয়ে দাও , ফিরিয়ে দাও-নাহয়
আব্দুল আলীমের দুয়ারে দাঁড়ানো পালকি
নাইওরে যাবার আহ্লাদ আজ আর অবশিষ্ট নেই।
সুললিত আজানধ্বনি শেষ হবার অপেক্ষায়
আমি বরং এখানেই দাঁড়িয়ে থাকি ।
আব্দুল করিমের বোলসিদ্ধ দোতারা হাতে করে

জানিনা কবে, কিভাবে-আমি হয়ে গেলাম
দুর্ভিক্ষে অভিজ্ঞ জয়নুলের একটি কাক
চিত্রার্পিত স্থিরতা আজ আমার ডানার ড্রইং এ
কেমন করে উড়ে যাই বলো !

অনাগত আঁকিয়ের জন্যে আমি হয়ে যাই
মায়ের শতচ্ছিন্ন শাড়ির মতো
ধূসরবর্ণ এক উন্মুক্ত ক্যানভাস।
শেয়ারবাজারে আহতের রক্তে যেখানে আঁকা হবে
স্বাধীনতার একটা লাল সূর্য। একটা সার্বভৌম সকাল।