একান্ত সাক্ষাতকারে ঘোষ সনৎ কুমার পুনরায় নির্বাচিত হতে পারলে দলমত নির্বিশেষে জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করে যাব


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৯ ||

মুজিবর রহমান, পাটকেলঘাটা: পুনরায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারলে দলমত নির্বিশেষে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সকল উন্ন্য়নমূলক কর্মকান্ডকে গতিশীল করতে কাজ করে যাব। মাদক সন্ত্রাস, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে জনগণকে সাথে নিয়ে কাজ করে যাব। তালা উপজেলাকে মডেল উপজেলায় রুপান্তরিত করা হবে। যতদিন রাজনীতি করব, ততদিন জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করে যাব। বুধবার একান্ত সাক্ষাতকারে তালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ঘোষ সনৎ কুমার এসব কথা বলেন। জানা গেছে, তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় নেতা ঘোষ সনৎ কুমার টানা তৃতীয়বারের মত দলীয় সমর্থন পেয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালা উপজেলা পরিষদের দু’বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান। তালার তৃণমূলের আস্থাভাজন এই আওয়ামী লীগ নেতার রাজনৈতিক কর্মকান্ড অত্যন্ত চমকপ্রদ। একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি তার রাজনৈতিক কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, ১৯৭৫ সালে ছাত্রজীবন থেকে রাজনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত থেকে সুনামের সহিত দলকে নেতৃত্ব দিয়ে এসেছেন। প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তার ছিল অগ্রনী ভুমিকার কথা বলেন। নেতৃত্ব প্রদানকালে জেল জুলুম অত্যাচার সহ্য করে তালার সাধারণ নেতাকর্মীদের মাঝে জনপ্রিয় নেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। ১৯৭৮ সালে তালা বিদে উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ১৯৮০ সালে তালা কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ১৯৮২ সালে তালা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি, ১৯৮৩ সালে তালা থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ৮৬ থেকে ৯৬ সাল দীর্ঘদিন তালা থানা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৬ সাল থেকে অদ্যাবধি তিনবার তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দলকে সুসংগঠিত করে রেখেছেন। ২০০৯ ও ২০১৪ সালে তালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ১৯৮৫ সাল থেকে তালা উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ১৯৯০ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত তালা উপজেলা হিন্দুবৌদ্ধ খ্রীষ্ট্রান ঐক্য পরিষদের উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বিভিন্ন কলেজ মাদরাসা ও বিদ্যালয়সহ বহু সংগঠনের সভাপতির পদে অধিষ্ঠিত আছেন। জনপ্রিয় এই নেতা ১৯৯০ সালে এরশাদ বিরোধী আন্দোলন ও ও ২০১২ সালে জামাত বিএনপির নির্যাতনের শিকার হয়ে অনেকবার কারাবরণ করেছেন। তিনি আগামী ২৪ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সকলের দোয়া ও সমর্থন কামনা করেছেন।