জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা শহরের কামালনগরে পৌরসভার জায়গা দখলের হিড়িক! রাজমিস্ত্রী আহাদ আলীর খুটির জোর কোথায়, মেয়রের নোটিশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি


প্রকাশিত : February 28, 2019 ||

এম জিললুর রহমান: অবৈধভাবে পৌরসভার জায়গা দখলের যেন প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। পৌর মেয়রের আইনি নোটিশের তোয়াক্কা করছেন না কেউ। এমনকি তোয়াক্কা করছেন না রাজমিস্ত্রী আহাদ আলীও। ফলে জায়গা দখলের এ প্রতিযোগিতার দায়ভার নেবে কে? ইতোমধ্যে এ প্রশ্ন উঠেছে সচেতন মহলে।
সাতক্ষীরা পৌর এলাকার ৮নং ওয়ার্ড কামালনগর গ্রামের ভিতর দিয়ে বাইপাস সড়ক যাওয়ায় এবং তুফান কনভেনশন সেন্টার ও লেকভিউ এর মত বড় প্রতিষ্ঠান হওয়ার কারণে এই এলাকা যেন রাতারাতি বেশ জনবহুল হয়ে উঠেছে। গত ইং ৪-১১-১৮ তারিখে পৌরসভা থেকে এন্তাজ আলীর পুত্র রাজমিস্ত্রি আহাদকে নোটিশ দিয়ে পৌরসভার জায়গা ছেড়ে প্রাচীর নির্মাণের জন্য বলা হলেও তিনি তা কোন রকম তোয়াক্কা না করে রাস্তার জায়গা দখল করে পাকা প্রাচীর নির্মাণ করেছেন।
এলাকাবাসি এ বিষয় নিয়ে কথা বললে তিনি দাক্তিকতার সাথে বললেন, কাউন্সিলর ও মেয়র আমার কিছু করতে পারবেনা, তোমরা বেশি ঝামেলা করোনা আমি সব ঠিক করে এসেছি। এ বিষয়ে ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এর সাথে মোবাইলে কথা হলে তিনি জানান, সামনে কে এফ ডাব্লিউ এর কাজ হবে আর সেই জন্য ড্রেন ও রাস্তা করব তাই সবাই কে নোটিশ করি এবং পৌর সার্ভেয়ার দিয়ে মেপে দেখি এখানে পৌরসভার অনেক জায়গা এলাকার মানুষ দখল করে রেখেছে।
পরবর্তিতে তাদেরকে নোটিশ করেছিলাম ভেঙে ফেলার জন্য, তবে কেউ যদি না ভাঙে আমরা পরবর্তিতে অবশ্যই ব্যবস্থা নেব। এদিকে পৌরসভার জায়গা দখল করে প্রাচির দেওয়ার বিষয়ে আহাদ আলী মিস্ত্রির সাথে কথা হলে তিনি বলেন, পৌরসভা থেকে মৌখিক অনুমতি নিয়ে প্রাচির দিয়েছি। কে কি বলল বা সাংবাদিকরা কি লিখল আমার যায় আসেনা। এবিষয়ে এলাকার মানুষের সাথে কথা হলে তারা বলেন, পৌরসভা নোটিশ দিলে সবাই একটু গোপনে যোগাযোগ করে। ফলে কিছুদিন কাজ বন্ধ থাকলেও আবার তা শুরু হয়। বর্তমানে দখলদার আহাদ আলীর বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসি জেলা প্রসাশকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।